kalerkantho

গলাচিপায় সম্মুখ যোদ্ধাদের নামফলক উন্মোচন

গলাচিপা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি   

২০ আগস্ট, ২০১৯ ২১:২৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গলাচিপায় সম্মুখ যোদ্ধাদের নামফলক উন্মোচন

১৯৭১ সালের ১৮ নভেম্বর গলাচিপার পানপট্টিতে পাকবাহিনীর সাথে মহান স্বাধীনতার সম্মুখ যুদ্ধে অংশগ্রহণকারী বীর যোদ্ধাদের নামফলক আনুষ্ঠানিকভাবে উন্মোচন করেন পটুয়াখালী ৩ আসনের সংসদ সদস্য এস এম শাহজাদা।

যুদ্ধকালীন কমান্ডার ও বর্তমান প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদা ও ডেপুটি কমান্ডার হাবিবুরর রহমান শওকতের নেতৃত্বে বীরমুক্তিযোদ্ধা খোকন, রবীন্দ্র নাথ হালদার, গোলাম মোস্তফা টিটোসহ প্রায় ৪০ জন মুক্তিযোদ্ধা গলাচিপা উপজেলার পানপট্টি সেন্টার এলাকায় পাক হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত সম্মুকযুদ্ধে যুদ্ধ করে। দিনভর যুদ্ধেও পর পাক হানাদার বাহিনীকে পরাজিত হয়ে পানপট্টি থেকে পালিয়ে যায়। এরপর গলাচিপা থানা শত্রুমুক্ত হয়।

আজ মঙ্গলবার সকাল ১০টায় গলাচিপার পানপট্টি  মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতিস্তভে নাম সম্মলিত ফলক উন্মোচনে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন গলাচিপা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মু. শাহিন শাহ, আ.লীগ সভাপতি অধ্যাপক সন্তোস কুমার দে, সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা ও পানপট্টি রনাঙ্গণের স্থানীয় গাইডম্যান গোলাম মোস্তফা টিটো, গলাচিপা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার ও আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা সদস্য কালাম মো. ঈসা, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মো. আবুল কালাম, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যন মো. নিজাম উদ্দিন মোল্লা, আওয়া লীগের সহ-সভাপতি হাজী মজিবর রহমান, গলাচিপা আওয়ামী লীগ নেতা মাইনুল ইসলাম রনো, পানপট্টি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি মো. কুদ্দুস মেলকার, চিকনিকান্দি ইউপি চেয়ারম্যান সাজ্জাদ হোসেন রিয়াদ ও গলাচিপা প্রেস ক্লাবের সভাপতি এবং সিনিয়র সাংবাদিক মু. খালিদ হোসেন মিলটন। 

ফলক উন্মোচন শেষে পানপট্টি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের উদ্যোগে ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষ্যে বঙ্গবন্ধু ও জাতির জনক শেখ মুজিবুর রহমানের স্মরণে এক আলোচনাসভা ও কাঙালিদের মাঝে খাবার বিতরণ করা হয়। পরে সংসদ সদস্য এস এম শাহজাদা পানপট্টি লঞ্চঘাটের নদী ভাঙন এলাকা পরিদর্শন করেন। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা