kalerkantho

র‌্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে জলদস্যু সর্দার নিহত

চকরিয়া (কক্সবাজার) প্রতিনিধি   

২০ আগস্ট, ২০১৯ ১২:৪৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



র‌্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে জলদস্যু সর্দার নিহত

পেকুয়া উপজেলায় র‌্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে দুর্ধর্ষ জলদস্যু সর্দার কামাল হোসেন ওরফে বাদশা ডাকাত (৩৩) নিহত হয়েছে। আজ মঙ্গলবার ভোররাত ৪টার দিকে মগনামা ইউনিয়নের শরৎঘোনা এলাকায় বন্দুকযুদ্ধের এ ঘটনা ঘটে। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে ৪টি দেশে তৈরি বন্দুক, ১২ রাউন্ড তাজা কার্তুজ, ৮টি খালি খোসা ও ৪টি ধারালো কিরিচ উদ্ধার করা হয়।

নিহত বাদশা তালিকাভুক্ত জলদস্যু ছিলেন। তার বাড়ি চট্টগ্রাম জেলার বাঁশখালী উপজেলার ছনুয়া ইউনিয়নে। তিনি ওই এলাকার আবুল কাশেমের ছেলে। র‌্যাবের ভাষ্য, নিহত বাদশা ডাকাতের বিরুদ্ধে অস্ত্র, ডাকাতি ও দস্যুতাসহ নানা অপরাধ অসংখ্য মামলা রয়েছে।

নবগঠিত র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন ১৫ এর কক্সবাজার ক্যাম্প কমান্ডার মেজর মেহেদি হাসান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ভোররাত ৪টায় পেকুয়া উপজেলার মগনামা ঘাটে জলদস্যু সর্দার বাদশার নেতৃত্বে একদল জলদস্যু ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছিল। খবর পেয়ে র‌্যাব ১৫ এর একটি আভিযানিক দল ওই এলাকায় অভিযানে যায়। এ সময় র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে জলদস্যুরা গুলি ছোড়ে। আত্মরক্ষার্থে র‌্যাবও পাল্টা গুলি চালায়। একপর্যায়ে জলদস্যুরা ট্রলারে করে পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থল থেকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় বাদশাকে উদ্ধার করে পেকুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। হাসপাতালের দায়িত্বরত জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

পেকুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাকির হোসেন ভূঁইয়া বলেন, মগনামার জেটিঘাটের অদূরে শরৎঘোনা এলাকা থেকে গুলিবিদ্ধ জলদস্যু বাদশা ডাকাতের লাশ উদ্ধার করা হয়। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ কক্সবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা