kalerkantho

জাপান-বাংলাদেশ বন্ধুত্বের ৫০ বছর

উদ্যোক্তা তৈরিতে দেশের তারুণদের প্রশিক্ষণ দিচ্ছে এওটিএস

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

১৯ আগস্ট, ২০১৯ ০২:৩৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



উদ্যোক্তা তৈরিতে দেশের তারুণদের প্রশিক্ষণ দিচ্ছে এওটিএস

জাপান-বাংলাদেশ বন্ধুত্বের ৫০ বছর পূর্তি হবে ২০২১ সালে। তাই এখন থেকে বিভিন্ন কর্মসূচি পালনের উদ্যোগ নিয়েছে জাপান সরকার। গতকাল রবিবার চট্টগ্রামে নিযুক্ত জাপানের অনারারি কনসাল জেনারেল নুরুল ইসলাম তাঁর কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে এ কথা জানান।

তিনি বলেন, ‘১৯৭২ সালের ১০ ফেব্রুয়ারি জাপান স্বাধীন বাংলাদেশকে স্বীকৃতি দেওয়ার পর আমাদের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক সৃষ্টি হয়। বড় দেশগুলোর মধ্যে জাপানই প্রথম দেশ যারা বাংলাদেশকে স্বীকৃতি দিয়েছিল। এরপর জাপান সরকার যুদ্ধবিধ্বস্ত বাংলাদেশ বিনির্মাণে অর্থনৈতিক, কারিগরিসহ বিভিন্নভাবে সহযোগিতার হাত বাড়ায়। সেই বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক এখনো অব্যাহত রয়েছে।’ 

জাপানের অনারারি কনসাল জেনারেল বলেন, ‘জাপান সরকার কোনো দেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ করে না। তারা সকলের উন্নয়ন সহযোগী হিসেবে কাজ করে। বর্তমানে বাংলাদেশের বড় বড় প্রকল্প জাপানের প্রতিষ্ঠান জাইকা ও জেট্রো বাস্তবায়ন করছে। এ ছাড়া এ দেশের শিক্ষার্থীদের শিক্ষা ও কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণের জন্য জেডিএস কাজ করে চলেছে।’

জাপানের বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ওইসকা, এবিকে দোসোকাই, এওটিএস অ্যালুমনি সোসাইটি, নিপ্পন একাডেমিসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের গরিব শিক্ষার্থীদের শিক্ষা, উচ্চশিক্ষা, কারিগরি প্রশিক্ষণ দিয়ে সহযোগিতা করছে।

স্বাধীনতা-পরবর্তী সময় থেকে বর্তমান পর্যন্ত জাপান সরকার চট্টগ্রামের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলতে সহযোগিতা করেছে উল্লেখ করে মোহাম্মদ নুরুল ইসলাম জানান, মেরিন একাডেমি, কাপ্তাই জলবিদ্যুৎ কেন্দ্র, চট্টগ্রাম বিমানবন্দর, ন্যাশনাল মেরিটাইম ইনস্টিটিউট, চট্টগ্রাম মত্স্য অবতরণ কেন্দ্র, চট্টগ্রাম-খাগড়াছড়ি সড়কের এবং কক্সবাজার-টেকনাফ সড়কের সব বড় সেতু জাপান সরকারের আর্থিক সহযোগিতায় নির্মিত হয়েছে। এ ছাড়া স্বাধীনতা-পরবর্তী সময়ে চট্টগ্রাম বন্দরের জন্য দুটি জাহাজ দিয়েছিল জাপান সরকার। তাই চট্টগ্রামের সঙ্গে জাপানের সম্পর্ক আরো নিবিড় হয়েছে। 

বাংলাদেশের জনগণকে দক্ষ জনশক্তিতে পরিণত করতে এ দেশের তরুণদের প্রশিক্ষিত করছে জাপানের বিভিন্ন বেসরকারি সংগঠন। এ দেশের শিল্প উদ্যোক্তা, ব্যবসায়ী, তরুণ উদ্যোক্তা, মধ্যম পর্যায়ের (মিড লেভেল) সরকারি-বেসরকারি কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণ দিয়ে দক্ষতা বৃদ্ধির চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে জাপান। 

এখন পার্বত্য চট্টগ্রামের তিন জেলায় উত্পাদিত ফল এবং কক্সবাজার, নোয়াখালী জেলার মত্স্য, লবণ ও শুঁটকি প্রক্রিয়াকরণের জন্য স্থানীয় তরুণদের প্রশিক্ষণ দেবে জাপানের বেসরকারি সংস্থা এওটিএস। এ লক্ষ্যে নানা প্রকল্প নিয়ে স্থানীয় তরুণ উদ্যোক্তাদের সংগঠিত করছে এই জাপানি প্রতিষ্ঠান।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা