kalerkantho

নওগাঁয় ডেঙ্গু পরীক্ষায় বিতর্কিত ফলাফলে জনমনে আতঙ্ক

নওগাঁ প্রতিনিধি   

১৭ আগস্ট, ২০১৯ ২২:১২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নওগাঁয় ডেঙ্গু পরীক্ষায় বিতর্কিত ফলাফলে জনমনে আতঙ্ক

নওগাঁয় ল্যাব এইড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে ডেঙ্গু শনাক্তকরণ পরীক্ষায় বিতর্কিত ফলাফল সাধারণ মানুষের মাঝে আতঙ্কের সৃষ্টি করেছে। এই ল্যাবে একজন রোগীর ডেঙ্গু আছে কিনা এমন পরীক্ষায় পজিটিভ ফল দেখালেও অন্য দুটি পৃথক ল্যাবে নেগেটিভ ফল পরিলক্ষিত হয়েছে। এ নিয়ে নওগাঁয় সাধারণ মানুষ সংশ্লিষ্ট ল্যাবের পরীক্ষা-নিরীক্ষা নিয়ে আতঙ্কগ্রস্ত।

জানা গেছে, নওগাঁ মাল্টিাপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম মাসুদ রানার দ্বিতীয় ছেলে হাসিনুর হাসান জীম জ্বর অনুভব করলে ১৫ আগস্ট নওগাঁ ল্যাব এইডে রক্ত পরীক্ষা করান। ডা. সমশের আলী স্বাক্ষরিত রিপোর্টে ডেঙ্গু এন এস ১ পজিটিভ দেখানো হয়। এই রিপোর্ট নিশ্চিত হওয়ার জন্য স্থানীয় অপর একটি প্যাথলজির ল্যাবরেটরিতে একই পরীক্ষায় নেগেটিভ রিপোর্ট প্রদর্শিত হয়। দুটি ল্যাবে পৃথক রিপোর্ট পরিলক্ষিত হলে বিতর্ক দূর করতে ওদিন বগুড়া ইবনে সিনা কনসালটেশন সেন্টারে ডা. ডি এম আরিফুর রহমান কর্ত্তৃক প্রদত্ত ডেঙ্গু এন এস ১ রিপোর্টেও নেগেটিভ ফল প্রদর্শিত হয়। এতে সাধারণ মানুষের মধ্যে ল্যাব এইডের মেডিক্যাল রিপোর্ট নিয়ে সন্দেহের উদ্রেক হয়েছে।

এ নিয়ে নওগাঁ ল্যাব এইডের ব্রাঞ্চ ইনচার্জ সাহানুর রহমানের সাথে কথা বললে তিনি বলেন, আমাদের ল্যাবে অত্যাধুনিক মেশিন দ্বারা সবকিছু পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হয়। আমাদের পরীক্ষা-নিরীক্ষার প্রক্রিয়াগত কোনো ত্রুটি নেই। ডেঙ্গু পরীক্ষার জন্য ব্যবহৃত ডিভাইস ত্রুটিযুক্ত হতে পারে। কারণ বিদেশ থেকে ডিভাইস আমদানি করার ক্ষেত্রে সরকারের কোনো বিধি-নিষেধ আরোপিত হয়নি। এখন কোন সোর্স থেকে কিভাবে ডিভাইসগুলো আসছে তা খতিয়ে দেখা দরকার। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে নিয়োজিত কোনো বৈধ সোর্সের মাধ্যমে এসব ডিভাইস আমদানী করা উচিত বলে তিনি মনে করেন।

ওই রিপোর্টের পর নওগাঁ ল্যাব এইডে মজুদকৃত লক্ষাধিক টাকার ডিভাইজ ব্যবহার অনুপযোগী হিসেবে ঘোষিত হয়েছে বলে তিনি জানান।

অপরদিকে রিপোর্টে স্বাক্ষরকারী ডা. শমসের আলীও জানান, ডেঙ্গু নিশ্চিত হতে হলে আরো আনুসঙ্গিক কিছু টেস্ট করাতে হয়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা