kalerkantho

বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকার অনশন

বাঘা (রাজশাহী) প্রতিনিধি   

১৭ আগস্ট, ২০১৯ ২১:৪৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকার অনশন

রাজশাহীর বাঘায় বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে অনশন করছেন এক প্রেমিকা। এদিকে প্রেমিকা বাড়িতে আসার পর পালিয়েছে প্রেমিক। আজ শনিবার দুপুর ৩টা পর্যন্ত প্রেমিকের বাড়িতে বিয়ের দাবিতে অবস্থান করছেন তিনি।

ইতিমধ্যে বিয়ে না করলে ওই প্রেমিকা আত্মহত্যার হুমকি দিয়েছেন। ফলে দুশ্চিন্তায় পড়েছে উভয় পরিবার। অভিযুক্ত প্রেমিক আড়ানী ইউনিয়নের সোনাহদ গ্রামের আবদুল মতিনের ছেলে ও রাজশাহী কলেজের মাস্টার্সের ছাত্র মাসুদ রানা তান্না।

অনশনরত প্রেমিকা জানান, প্রায় আড়াই বছর ধরে মাসুদ রানার সাথে তার প্রেমের সম্পর্ক চলছে। এর মধ্যে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলে রানা। এমনকি রানা নিয়মিত আমাকে বিভিন্নস্থানে নিয়ে যেত। শুক্রবার বিকেলে ওদের বাড়িতে আসলে বিয়ে করতে রাজি হয়। পরে কৌশলে আমাকে রেখে বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়। তারপর থেকে বিয়ের দাবিতে ওর বাড়িতে অবস্থান করছি। ও বিয়ে না করলে আত্মহত্যা করা ছাড়া আর কোনো পথ নেই।

স্থানীয়রা জানান, এই তরুণী মাসুদ রানার বাড়িতে আসার পর কৌশলে পালিয়েছে সে। তারপর থেকে তাকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না।

মাসুদ রানার বাবা আবুল মতিন বলেন, আমি স্থানীয়দের বলেছি ছেলেকে ধরে এনে বিয়ে দেওয়া করার জন্য। এতে আমার কোনো আপত্তি নেই। তবে ছেলেকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। 

আড়ানী ইউনিয়ন চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম বলেন, উভয়ে আমাকে ঘটনাটি জানিয়েছে। আমি সমঝোতা করার চেষ্টা করছি। তবে ছেলে পলাতক থাকায় এখন পর্যন্ত কোনো সমঝোতা করা সম্ভব হয়নি। পরে মেয়েকে ছেলের বাড়ি থেকে উদ্ধার করে স্থানীয় চকিদার ডাবলু সরকারের বাড়িতে জিম্মায় রাখা হয়েছে।

বাঘা থানার ওসি নজরুল ইসলাম বলেন, আড়ানী ইউনিয়ন চেয়ারম্যান অবহিত করেছেন। তবে কেউ কোনো লিখিত অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেব।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা