kalerkantho

মঙ্গলবার। ২০ আগস্ট ২০১৯। ৫ ভাদ্র ১৪২৬। ১৮ জিলহজ ১৪৪০

মহিউদ্দিন চৌধুরী ফাউন্ডেশন

টুঙ্গিপাড়ায় এবারও ৪০ হাজার মানুষের জন্য মেজবান আয়োজন

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

১৫ আগস্ট, ২০১৯ ০১:৪৩ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



টুঙ্গিপাড়ায় এবারও ৪০ হাজার মানুষের জন্য মেজবান আয়োজন

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪তম শাহাদাতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আজ বৃহস্পতিবার টুঙ্গিপাড়ায় ৪০ হাজার মানুষকে মেজবান খাওয়ানো হচ্ছে। চট্টগ্রামের এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে এ আয়োজন করা হয়েছে। 

জাতীয় শোক দিবসে টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর মাজারে শ্রদ্ধা নিবেদন ও মেজবান আয়োজন সফল করার লক্ষ্যে গতকাল বুধবার চট্টগ্রাম থেকে ৪০০ জনের একটি দল গাড়িবহর নিয়ে সড়কপথে টুঙ্গিপাড়ার উদ্দেশে রওনা দেয়। দলটির নেতৃত্ব দেন শিক্ষা-উপমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল এমপি। তিনি চট্টগ্রামের বর্ষীয়ান আওয়ামী লীগ নেতা ও সাবেক মেয়র প্রয়াত এ বি এম মহিউদ্দীন চৌধুরীর বড় ছেলে। বহরে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত দুটি বাস এবং ৪০টি মাইক্রোবাস ছিল বলে সংশ্লিষ্টরা জানান। 

এর আগে গতকাল দুপুর ১২টায় নগরে জমিয়তুল ফালাহ মসজিদ ময়দান থেকে এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ও চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সহযোগিতায় টুঙ্গিপাড়ার উদ্দেশে গাড়িবহরের শুভযাত্রা কামনা করে বক্তব্য দেন মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল।

তিনি বলেছেন, ‘খুব দুঃসময়ে বঙ্গবন্ধুর কবর টুঙ্গিপাড়ায় আমার বাবা মেজবান আয়োজন করে মানুষের মুখে তবারক তুলে দিয়েছিলেন। আমার বাবা নেই। সেই ঐতিহ্যের ধারাবাহিকতা রক্ষায় আমি ঈমানি দায়িত্ব পালন করে আপনাদের সবাইকে টুঙ্গিপাড়া যাত্রা উপলক্ষে শুভকামনা জানাই।’ এ সময় মোনাজাত পরিচালনা করেন অধ্যাপক মাসুম চৌধুরী।

উল্লেখ্য, চট্টগ্রামের বর্ষীয়ান আওয়ামী লীগ নেতা এ বি এম মহিউদ্দীন চৌধুরী টানা ২৮ বার নিজে উপস্থিত থেকে টুঙ্গিপাড়ায় মেজবান আয়োজন তদারকি করেন। ২০১৭ সালের ১৪ ডিসেম্বর রাতে মহিউদ্দিন চৌধুরী মারা যান। এরপর তাঁর পরিবার গত বছর থেকে মেজবান আয়োজন করে আসছে। 

জানা গেছে, টুঙ্গিপাড়ায় গত বছরের মতো এবারও ৪০ হাজার মানুষকে আজ মেজবান খাওয়ানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে। এর মধ্যে স্থানীয় কলেজ মাঠে ৩০ হাজার মুসলমান ও বালাগঞ্জ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে ১০ হাজার সনাতন ধর্মাবলম্বীর জন্য মেজবানের ব্যবস্থা করা হয়েছে। খাবার প্রস্তুত ও আয়োজন তদারকি করার জন্য গত সোমবার চট্টগ্রাম থেকে একটি দল সেখানে যায়।

এদিকে আজ ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে সকালে দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিতকরণ ও শোক পতাকা উত্তোলন শেষে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা