kalerkantho

শনিবার । ২৫ জানুয়ারি ২০২০। ১১ মাঘ ১৪২৬। ২৮ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

ভারতে পাচার হওয়া সাত বাংলাদেশিকে হস্তান্তর

বেনাপাল প্রতিনিধি   

১৩ আগস্ট, ২০১৯ ২২:৩১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ভারতে পাচার হওয়া সাত বাংলাদেশিকে হস্তান্তর

অবৈধ পথে ভারতে পাচার হওয়া সাত বাংলাদেশি নারী ও তরুণীকে স্বদেশ প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়ার মাধ্যমে ফেরত পাঠিয়েছে ভারত সরকার।

আজ মঙ্গলবার সন্ধ্যায় কাগজপত্রের আনুষ্ঠানিকতা শেষে ভারতের পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ ও বিএসএফ সদস্যরা তাদেরকে যৌথভাবে বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশন পুলিশ ও বিজিবি সদস্যদের হাতে তুলে দেয়। রাইটস যশোর নামে একটি এনজিও সংস্থা তাদেরকে পরিবারের কাছে পৌঁছে দিতে নিজেদের জিম্মায় নিয়েছেন।

ফেরত আসারা হলো ঢাকার রুপা চৌধুরী, রাবেয়া ও লাবনী, যশোরের নারগীস, নড়াইলের অথই শিলা, বাগেরহাটের সাগর মোল্লা ও চাঁপাইনবানগঞ্জের শফিকুল ইসলাম।

পাচারের শিকার রুপা চৌধুরীসহ অন্যরা জানান, ভালো কাজের প্রলোভনে দালালের খপ্পরে পড়ে সীমান্তের অবৈধ পথে তারা ভারতে পাড়ি জমায়। পরে দালালরা তাদের সেখানে ফেলে পালিয়ে আসে। ভারতীয় পুলিশ তাদের আটক করে জেলে পাঠায়। সেখান থেকে নিলুয়া হোম নামে একটি এনজিও সংস্থা তাদের ছাড়িয়ে নিজেদের আশ্রয়ে রাখে। সাত বছর পর তারা বাড়ি ফিরছেন।

এনজিও সংস্থা যশোর রাইটসের তথ্য ও অনুসন্ধান কর্মকর্তা তৌফিকুজ্জামান জানান, দুই দেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের যোগাযোগের মাধ্যমে তাদেরকে স্বদেশ প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়ায় ফেরত আনা হয়েছে। এরা যদি পাচারকারীদের শনাক্ত করে মামলা করতে আইনি সহায়তা করা হবে। পোর্ট থানা থেকে নিয়ে তাদের যশোর নিজস্ব শেল্টার হোমে রাখা হবে। পরে অভিভাবকদের কাছে পৌঁছে দেওয়া হবে।

বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) মাসুম বিল্লাহ জানান, কাগজপত্রের আনুষ্ঠানিকতা শেষে তাদেরকে পোর্ট থানা পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। তারা পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

বেনাপাল পোর্ট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দ আলমগীর হোসেন জানান, ফেরত আসা নারী ও তরুণীদের রাতেই রাইটস যশোরের কর্মকর্তাদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। তারা তাদের পরিবারের কাছে পৌঁছে দেবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা