kalerkantho

মঙ্গলবার। ২০ আগস্ট ২০১৯। ৫ ভাদ্র ১৪২৬। ১৮ জিলহজ ১৪৪০

কেউ কিনতে আসেনি, পুঁতে ফেলা হলো ৯০০ চামড়া

জগন্নাথপুর (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি   

১৩ আগস্ট, ২০১৯ ১৮:১৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কেউ কিনতে আসেনি, পুঁতে ফেলা হলো ৯০০ চামড়া

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে ৯০০ কোরবানির পশুর চামড়া পুঁতে দেওয়া হয়েছে। আজ মঙ্গলবার উপজেলার সৈয়দপুর-শাহারপাড়া ইউনিয়নের সৈয়দপুর হোসাইনিয়া হাফিজিয়া আরাবিয়া দারুল হাদিস মাদরাসা প্রাঙ্গণে ওই সব চামড়া পুঁতে দেওয়া হয়।

মাদরাসা কর্তৃপক্ষ ও স্থানীয়রা জানান, প্রতিবছরের মতো এবারও ঈদুল আজহার কোরবানির পশুর চামড়া ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রাম থেকে ঈদের দিন সৈয়দপুর হোসাইনিয়া হাফিজিয়া আরাবিয়া দারুল হাদিস মাদরাসার পক্ষে থেকে কোরবানির পশুর চামড়া সংগ্রহ করা হয়। কোরবানিদাতারা
মাদরাসার উন্নয়ন তহবিলে চামড়াগুলো দান করেন। মাদরাসা কর্তৃপক্ষে চামড়া বিক্রয়ের জন্য দিনভর অপেক্ষা করেও বিক্রি করতে পারেননি। প্রতিবাদে আজ বিকেল ৩টার দিকে মাদরাসা কর্তৃপক্ষ ওই সব চামড়া বিক্রি করতে না পেরে মাদরাসার নিকটস্থ এলাকায় মাটিতে পুঁতে দেয়।

মাদরাসার মুহতামিম হাফেজ মাওলানা সৈয়দ ফখরুল ইসলাম বলেন বলেন, অন্যান্য বছরের ন্যায় এবারও আমাদের মাদরাসার পক্ষ থেকে বাড়ি বাড়ি গিয়ে কোনবানিদাতাদের নিকট থেকে কোরবানির পশুর ৯০০ চামড়া সংগ্রহ করা হয়। এর মধ্যে গরুর চামড়া রয়েছে ৮০০ ও ছাগলের ১০০ পিস। চামড়া ক্রয় করতে কেউ আসেনি। বাধ্য হয়ে মাটিতে পুঁতে দেওয়া হয়েছে চামড়াগুলো। তিনি বলেন, চামড়াগুলো সংগ্রহে এবং চামড়ায় লবণ ব্যবহারের ৫০ হাজার টাকা ব্যয় হয়েছে। 

জগন্নাথপুরের বিভিন্ন এলাকার কোরবানিদাতারা চামড়া বিক্রয় করতে না পেরে অধিকাংশ মাটিতে পুঁতে রেখেছেন বলে খবর পাওয়া গেছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা