kalerkantho

মঙ্গলবার। ২০ আগস্ট ২০১৯। ৫ ভাদ্র ১৪২৬। ১৮ জিলহজ ১৪৪০

ভুয়া চিকিৎসকের ডায়াগনস্টিক সেন্টার সিলগালা

৫০ হাজার টাকা জরিমানা

মেহেরপুর প্রতিনিধি   

২৪ জুলাই, ২০১৯ ০০:১৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ভুয়া চিকিৎসকের ডায়াগনস্টিক সেন্টার সিলগালা

ছবি: কালের কণ্ঠ

মেহেরপুর সদর উপজেলার আমঝুপিতে এম এ হান্নান নামের এক ভুয়া চিকিৎসকের ডায়াগনস্টিক সেন্টার সিলগালা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। একই সঙ্গে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে সাত দিনের জেল দেওয়া হয়েছে। 

মঙ্গলবার দুপুরে মেহেরপুরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মিনহাজুল ইসলাম এ অভিযান পরিচালনা করেন। এ সময় জেলা মেডিক্যাল অফিসার সজিব উদ্দিন স্বাধীন ভ্রাম্যমাণ আদালত সহযোগীতা করেন। 

মেডিক্যিাল অফিসার সজিব উদ্দিন জানান, সদর উপজেলার আমঝুপির সামিউল টাওয়ারের ২য় তলা ভাড়া নিয়ে চিকিৎসক নামধারী এম এ হান্নান সেখানে ডায়াগনস্টিক সেন্টার চালু করেছেন। সেখানে অভিযান চালিয়ে দেখা যায় বিভিন্ন উচ্চক্ষমতা সম্পন্ন ইঞ্জেক্টেবল, লিফলেট, প্রেস্ক্রিপশন প্যাড, রুগির স্লিপ অন্যান্য যন্ত্রপাতি পাই। এম এ হান্নান পিচ বেস্নড নামের এক ভুয়া ইউনিভার্সিটি থেকে ভুয়া এমবিবিএস ডিগ্রীর কাগজ ম্যানেজ করে National Alternative Medical and Dental Council র কাছে থেকে নিবন্ধন নিয়েছেন। যেটি চিকিৎসকদের সনদ দেওয়ার জন্য বৈধ প্রতিষ্ঠান নয়। চিকিৎসকদের একমাত্র লাইসেন্স প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান BMDC।

তিনি আরো জানান, এর আগে BMDC এর আদলে Bangladesh Combined Medical and dental Council (BCMDC) নামে অবৈধ লাইসেন্স দিচ্ছিল এবং তারা হাইকোর্টে রিট করে, তার সুযোগ নিয়ে কার্যকলাপ পরিচালনা করতো। সেই রিট খারিজ হয়ে গেলে তারা National medical and dental Council  নাম দিয়ে এই ভুয়া রেজিস্ট্রেশন প্রদান বজায় রেখেছে। যা দিয়ে সাধারণ রোগীরা প্রতিনিয়ত প্রতারিত হচ্ছেন।
 
নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মিনহাজুল ইসলাম জানান, ভুয়া সনদ নিয়ে চিকিৎসা কার্যক্রম চালানোর অপরাধে এম এ হান্নানের ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে সাত দিনের জেল দেওয়া হয়েছে এবং প্রতিষ্ঠানটি সিলগালা করে দেওয়া হয়েছে। তিনি আরো জানান, ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনের ৫৩ ধারায় তার এ দণ্ড দেওয়া হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা