kalerkantho

রবিবার। ১৮ আগস্ট ২০১৯। ৩ ভাদ্র ১৪২৬। ১৬ জিলহজ ১৪৪০

প্রতিবন্ধী শিশুকে গলাটিপে হত্যা, ঘাতক পিতা গ্রেপ্তার

ফুলবাড়িয়া (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি   

২৩ জুলাই, ২০১৯ ২১:৪৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



প্রতিবন্ধী শিশুকে গলাটিপে হত্যা, ঘাতক পিতা গ্রেপ্তার

ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়ার ভবানীপুর ইউনিয়নের কচুয়ার পাড় এলাকায় ৪ বছরের শারীরিক প্রতিবন্ধী শিশু স্বাধীনকে গলাটিপে হত্যা করার অভিযোগ উঠেছে সৎ পিতার বিরুদ্ধে।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে কচুয়ার মোড় ভাড়া বাসায় পিতা কামাল উদ্দিন ঘটনাটি ঘটিয়েছেন বলে অভিযোগ করেছেন স্বাধীনের মা ওম্মে কুলসুম।

গ্রামবাসী সৎ পিতা কামলা উদ্দিনকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে। পুলিশের ধারণা পারিবারিক কলহের কারণেই শিশুটিকে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় ফুলবাড়িয়া থানায় একটি হত্যা মামলা হয়েছে।

মঙ্গলবার বিকেলে পুলিশ শিশুটির লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেছে।

এলাকাবাসী জানায়, কান্দানিয়া কচুয়ার পাড় গ্রামের কামাল উদ্দিন ৬ মাস পূর্বে একই গ্রামের বিধবা উম্মে কুলছুমকে প্রতিবন্ধী সন্তানসহ বিয়ে করেন। বিয়ের কিছু দিন পর থেকেই তাদের মাঝে প্রায়ই ঝগড়া-বিবাদ হয়। মঙ্গলবার সকালেও স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া হলে স্ত্রী ওম্মে কুলসুম ভাড়া বাসায় শিশু স্বাধীনকে রেখে পার্শ্ববর্তী বাড়িতে চলে যায়। দুপুরে বাড়িতে এসে শিশুটিকে মৃত অবস্থায় বিছানায় দেখতে পায় তার মা।

মা ওম্মে কুলসুম বলেন, স্বাধীনকে ভালো রেখে গেছি। দুপুরে বাড়িতে এসে দেখি মৃত। তার গলায় ও মুখে আঘাতে চিহ্ন রয়েছে। কামাল উদ্দিন আমার প্রতিবন্ধী শিশুকে গলা টিপে হত্যা করেছে।

ফুলবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো. ফিরোজ তালুকদার (পিপিএম বার) বলেন, পারিবারিক কলহের জের ধরে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটতে পারে। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা