kalerkantho

বুধবার । ২১ আগস্ট ২০১৯। ৬ ভাদ্র ১৪২৬। ১৯ জিলহজ ১৪৪০

ভোলা-লক্ষীপুর রুটে দুই ফেরি বিকল, দুর্ভোগে যাত্রীরা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৩ জুলাই, ২০১৯ ০৮:৩৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ভোলা-লক্ষীপুর রুটে দুই ফেরি বিকল, দুর্ভোগে যাত্রীরা

ভোলা-লক্ষীপুর রুটের দুইটি ফেরি বিকল হয়ে পড়েছে। যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে এ অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে বলে জানা গেছে। একটি ফেরি  সচল থাকলেও উভয় পাড়ে আটকে আছে বহু যানবাহন। এতে চরম দুর্ভোগ পড়েছে যাত্রীরা।

দেশের দীর্ঘতম ভোলা-লক্ষীপুর ফেরী রুটটি দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ২১ জেলার যোগাযোগের অন্যতম সহজ মাধ্যম। এই রুটে কনকচাঁপা, কৃষানী ও কলমিলতা নামের তিনটি ফেরি নিয়মিত চলাচল করে। কিন্তু গত দুই দিনে পরপর দুইটি ফেরি যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে বিকল হয়ে পড়ায় যানবাহন পারাপারে সৃষ্টি হয়েছে মারাত্মক ভোগান্তি।

পরিবহন চালক ও শ্রমিকরা জানান, গত ছয়-সাত দিন ধরে তারা ঘাটে  অপেক্ষা করছেন। কবে গন্তব্যে পৌঁছাতে পারবেন তা বলতে পারছেন না। তাদের অভিযোগ, দিনে একবার ফেরি চলাচল করে, তাই ঘাটেই বসে থাকতে হয়। ত্রুটিযুক্ত ফেরি দুইটি সচল না হওয়া পর্যন্ত গন্তব্যে পৌঁছাতে অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে তাদের জন্য।

কয়েকজন চালক জানান, ভোলা-লক্ষীপুর রুটটি গুরুপ্তপূর্ন হলেও অবহেলিত, একের পর এক সমস্যা লেগেই আছে। এখাতে বাড়তি ফেরি  প্রয়োজন। সামনে ঈদ আসছে, খুব দ্রুত ফেরির সমস্যার সমাধান না হলে ভোগান্তির সীমা থাকবে না।

ঘাটে গিয়ে দেখা যায়, মাত্র একটি সচল ফেরি দিয়ে কিছু যানবাহন পারাপার হচ্ছে। তবে ফেরির ট্রিপ কমে যাওয়ায় উভয় পাড়ে পরিবহনের দীর্ঘ সারি সৃষ্টি হয়েছে। এতে চরম দুর্ভোগে পড়েছে ট্রাক ও পরিবহন শ্রমিকরা এবং সাধারণ যাত্রীরা।

ফেরীর বিআইডাব্লিউটিসি'র ব্যবস্থাপক মো. এমরান খান বলেন, খুব দ্রুত ফেরি সচল হবে এবং এক সপ্তাহের মধ্যে যানজট নিরসন হবে। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা