kalerkantho

সোমবার। ১৯ আগস্ট ২০১৯। ৪ ভাদ্র ১৪২৬। ১৭ জিলহজ ১৪৪০

স্ত্রীর সঙ্গে পরকীয়া, ছেলেধরা বলে প্রবাসীকে পিটিয়ে হত্যা

নিজস্ব প্রতিবেদক, সাভার (ঢাকা)   

২২ জুলাই, ২০১৯ ১৬:১৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



স্ত্রীর সঙ্গে পরকীয়া, ছেলেধরা বলে প্রবাসীকে পিটিয়ে হত্যা

ঢাকার ধামরাইয়ে পরকীয়ার অভিযোগ এনে প্রবাস ফেরত এক ব্যবসায়ীকে ছেলেধরা বলে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ছয়জনকে আটক করেছে পুলিশ। 

সোমবার সকালে ধামরাই থানার পুলিশ পরিদর্শক দীপক সাহা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এর আগে রবিবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে ধামরাইয়ের রোয়াইল ইউনিয়নের কৃষ্ণনগর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহতের নাম আবুল কালাম আজাদ (২৭)।

পুলিশ জানায়, প্রবাস ফেরত আবুল কালাম আজাদ মাটি বিক্রয়ের ব্যবসায়ী ছিলেন। একই এলাকার এক মুদি দোকানীর স্ত্রীর সাথে তার পরকীয়ার সম্পর্ক ছিল। ওই মুদি দোকানী তার দোকান পাহারা দেওয়ার জন্য দোকানেই রাত্রি যাপন করতেন। এই সুযোগে মুদি দোকানীর স্ত্রী প্রবাসী আবুল কালাম আজাদের সাথে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়ে। তবে বিষয়টি বুঝতে পেরে ওই মুদি দোকানী তার স্ত্রীকে ভয়-ভীতি দেখান ও হত্যার হুমকি দেন।

এ ঘটনার পর রবিবার রাতে প্রবাসী আবুল কালাম আজাদকে ওই দোকানী তার স্ত্রীর মাধ্যমে কৌশলে বাড়িতে ডেকে আনেন। পরে সেখানে তাকে প্রথমে ছেলেধরা ও পরে ডাকাত বলে বেধড়ক মারপিট করা হয়। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। পরে পুলিশ গিয়ে পরকীয়ায় বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে স্বামী-স্ত্রীসহ তাদের সহযোগী ছয়জনকে আটক করে।

ধামরাই মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক দীপক সাহা বলেন, এটি পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড। হত্যাকারীরা নিজেদের বাঁচাতে নানা উপায় খুঁজতে থাকে ও ভুল তথ্য দেয়। পরে সন্দেহ হলে জিজ্ঞাসাবাদে মূল ঘটনা বেরিয়ে আসে।

নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকার শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা