kalerkantho

শনিবার । ২৪ আগস্ট ২০১৯। ৯ ভাদ্র ১৪২৬। ২২ জিলহজ ১৪৪০

গৌরীপুরে হুমায়ূন আহমেদের নামে ট্রেন চান ভক্তরা

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, ময়মনসিংহ   

১৯ জুলাই, ২০১৯ ১৫:১৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গৌরীপুরে হুমায়ূন আহমেদের নামে ট্রেন চান ভক্তরা

প্রকাশিত প্রথম উপন্যাস 'নন্দিত নরকে' দিয়েই হুমায়ূন আহমেদ কথাসাহিত্যে পালাবদলের তাৎপর্যপূর্ণ ইঙ্গিত দিয়েছিলেন। একের পর জনপ্রিয় উপন্যাস রচনা করে গেছেন। আজ ১৯ জুলাই, এই নন্দিত কথাশিল্পীর সপ্তম মৃত্যুবার্ষিকী। তাকে স্মরণ করছে পুরো দেশ। আর এ উপলক্ষে শুক্রবার সকালে ঐতিহাসিক গৌরীপুর রেলওয়ে জংশন চত্বরে ‘হুমায়ূন আহমেদ স্মৃতি পরিষদের’ উদ্যোগে কালো পতাকা উত্তোলন, কালো ব্যাজ ধারণ ও আলোচনাসভা অনুষ্টিত হয়েছে।

আলোচনাসভার পর একই স্থানে হুমায়ূন আহমেদের স্মৃতিরক্ষা ও তার নামে ট্রেনের নামকরণের দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছেন ভক্ত ও সংগঠনের সদস্যরা। মানবন্ধনে বক্তব্য রাখেন হুমায়ূন আহমেদ স্মৃতি পরিষদের সভাপতি মোতালিব বিন আয়েত, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পীযুশ রায় গণেশ, সাংগঠনিক সম্পাদক সেলিম আল রাজ, সদস্য সঞ্জয় ঘোষ, সাপ্তাহিক রাজগৌরীপুরের উপদেষ্টা সম্পাদক আজম জহিরুল ইসলাম, সাংবাদিক রাকিবুল ইসলাম রাকিব, মহসীন মাহমুদ, মোজাম্মেল হোসেন, মিলন খান, নিরঞ্জন ঘোষ প্রমুখ।

মানববন্ধনে বক্তরা বলেন আমাদের গৌরীপুর রেলওয়ে জংশনের পটভূমিকে কেন্দ্র করেই রচিত হয়েছে হুমায়ূন আহমেদের কালজয়ী উপন্যাস ‘গৌরীপুর জংশন’। ২০১২ সালে লেখকের মৃত্যুর পর থেকে গৌরীপুর রেলওয়ে জংশনে হুমায়ূন আহমেদের স্মৃতি রক্ষা ও তার নামকরণে একটি ট্রেন চালুরর দাবি জানিয়ে রেলমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদানসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করে আসছি। যেহেতু রেলযোগাযোগ ব্যবস্থায় ঈশা খান এক্সপ্রেস, বনলতা এক্সপ্রেস, মহুয়া এক্সপ্রেসসহ বিভিন্ন নামে ট্রেন চালু রয়েছে। তাই হুমায়ূন আহমেদের নামে ট্রেনের নামকরণের দাবিটি অযৌক্তিক নয়। 

মানববন্ধন শেষে হুমায়ূন আহমেদের স্মরণে গৌরীপুর জংশনে ভক্তরা এক মিনিট নিরবতা পালন করেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা