kalerkantho

সোমবার। ১৯ আগস্ট ২০১৯। ৪ ভাদ্র ১৪২৬। ১৭ জিলহজ ১৪৪০

এইচএসসি পরীক্ষার ফল

জিপিএ ৫, নিজের রেকর্ডই ভেঙেছে চট্টগ্রাম কলেজ

নূপুর দেব, চট্টগ্রাম   

১৮ জুলাই, ২০১৯ ০৩:০৭ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



জিপিএ ৫, নিজের রেকর্ডই ভেঙেছে চট্টগ্রাম কলেজ

চট্টগ্রাম কলেজ। ২০১৮ সালে প্রতিষ্ঠার দেড় শ বছর পার করেছে নগরের ঐতিহ্যবাহী প্রতিষ্ঠানটি। ১৫১তম বছরে এসে দেশের খ্যাতনামা এই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান নিজের রেকর্ড নিজেই ভেঙেছে। গতকাল বুধবার প্রকাশিত ফল অনুযায়ী এই কলেজ থেকে মোট ৮৭৮ পরীক্ষার্থীর মধ্যে জিপিএ ৫ পেয়েছে ৫৫৫ জন। মোট পাস করেছে ৮৬৬ জন। সে হিসাবে পাসের হার ৯৮.৬৩ শতাংশ।
 
দেশের আটটি সাধারণ শিক্ষা বোর্ডে ২০১৯ সালের এইচএসসি পরীক্ষায় পাসের হারে চট্টগ্রাম মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড সর্বনিম্ন ফল করেছে। বোর্ডে এই ফলবিপর্যয়ের মধ্যেও চট্টগ্রাম সরকারি কলেজ নিজেদের শ্রেষ্ঠত্ব ধরে রেখেছে।
 
জানা যায়, চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডের অধীনে এবার এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ নেওয়া ২৬০টি কলেজের মধ্যে চট্টগ্রাম কলেজ সবচেয়ে বেশি জিপিএ ৫ পাওয়ার গৌরব অর্জন করেছে। বোর্ডে টানা চারবার সর্বোচ্চ জিপিএ ৫সহ পাসের হার বৃদ্ধিতে খুশিতে আত্মহারা শিক্ষার্থী, শিক্ষক-শিক্ষিকা ও অভিভাবকরা। গতকাল দুপুরে ফল প্রকাশের পর নেচে-গেয়ে, পরস্পরকে মিষ্টিমুখ, কোলাকুলি, করমর্দন করে শিক্ষার্থীরা আনন্দ উদ্যাপন করেছে।
 
চট্টগ্রাম কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক মো. আবুল হাসান কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘শিক্ষার্থী, শিক্ষক-শিক্ষিকা ও অভিভাবকদের সমন্বিত প্রচেষ্টায় আমাদের এই ভালো ফল। এই তিন পক্ষের প্রচেষ্টা ছাড়া ভালো ফল সম্ভব নয়। আমাদের কলেজ ২০১৬ সাল থেকে টানা চারবার বোর্ডে সর্বাধিক জিপিএ ৫ পেয়ে আসছে। সবার সহযোগিতায় আমরা আরো ভালো করতে চাই।’ 
 
জানতে চাইলে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড চট্টগ্রামের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মোহাম্মদ মাহবুব হাসান গতকাল সন্ধ্যায় কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘এসএসসি পরীক্ষায় যারা ভালো ফল করে তাদের প্রথম পছন্দ থাকে চট্টগ্রাম কলেজ। মেধাবী শিক্ষার্থীরা এই কলেজে ভর্তি হয়। এসএসসির ধারাবাহিকতা থেকেই কলেজটির শিক্ষার্থীরা এইচএসসিতেও ভালো ফল করেছে।’
 
জানা যায়, গত বছর এইচএসসি পরীক্ষায় চট্টগ্রাম কলেজ থেকে বিজ্ঞান ও মানবিক বিভাগে ৮৮৯ শিক্ষার্থী অংশ নিয়ে ৮৬৭ জন পাস করে। পাসের হার ছিল ৯৭.৫৩ শতাংশ। জিপিএ ৫ পেয়েছিল ৪৯৯ জন। এর আগের বছর ৮৪২ জন শিক্ষার্থী অংশ নিয়ে ৭৯৯ জন পাস করে। পাসের হার ছিল ৯৪.৮৯ শতাংশ। জিপিএ ৫ পায় ৩৯১ জন (সর্বোচ্চ)। 
 
এদিকে চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডের অধীনে বিভিন্ন কলেজ থেকে দুই হাজার ৮৬০ জন শিক্ষার্থী জিপিএ ৫ পেয়েছে। এসব কলেজের মধ্যে প্রথম চট্টগ্রাম কলেজ। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ জিপিএ ৫ পায় সরকারি হাজী মুহাম্মদ মহসিন কলেজ। এবার এই কলেজ থেকে এক হাজার ৭৬৯ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে এক হাজার ৪৯৮ জন পাস করেছে। এর মধ্যে জিপিএ ৫ পেয়েছে ৫৩৪ জন। পাসের হার ৯৫.৯৯ শতাংশ।
 
এর বাইরে জিপিএ ৫ পাওয়া কলেজগুলোর মধ্যে রয়েছে যথাক্রমে চট্টগ্রাম সরকারি সিটি কলেজ ৩২১ জন, চট্টগ্রাম ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক কলেজ ২৫০ জন, চট্টগ্রাম সরকারি মহিলা কলেজ ১৭৩ জন, সরকারি কমার্স কলেজ ১৫৭ জন, ইস্পাহানি পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজ ৯৩ জন, ক্যান্টনমেন্ট ইংলিশ স্কুল অ্যান্ড কলেজ ৮৪ জন, পটিয়া সরকারি কলেজ ৬১ জন ও হাজেরা-তজু ডিগ্রি কলেজ ৫৫ জন। এর পাশাপাশি আরো বিভিন্ন কলেজ জিপিএ ৫ পেয়েছে।
 
এ ছাড়া চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডে শতভাগ পাস করা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সংখ্যা চার। একজনও পাস করেনি এমন প্রতিষ্ঠান রয়েছে একটি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা