kalerkantho

বুধবার । ২১ আগস্ট ২০১৯। ৬ ভাদ্র ১৪২৬। ১৯ জিলহজ ১৪৪০

জিয়াউর রহমানের নামের আগে 'শহীদ' শব্দে আপত্তি ইবি ছাত্রলীগের

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

১৭ জুলাই, ২০১৯ ১৯:৫২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



জিয়াউর রহমানের নামের আগে 'শহীদ' শব্দে আপত্তি ইবি ছাত্রলীগের

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে শহীদ জিয়াউর রহমান হলের নাম থেকে শহীদ শব্দ বাদ দেওয়ার দাবি জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের নতুন কমিটি। এ ছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্র শিবিরের রাজনীতি নিষিদ্ধ ঘোষণার দাবি জানিয়েছে তারা।

এসকল দাবিসহ মোট ৫ দফা দাবিতে আজ বুধবার দুপুর আড়াইটায় উপাচার্য অধ্যাপক হারুন-উর-রশিদ আসকারী বরাবর স্মারকলিপি দেন দলের নেতারা।

ছাত্রলীগের সভাপতি রবিউল ইসলাম পলাশ ও সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল ইসলামের নেতৃত্বে পাঁচ দফা দাবিতে উপাচার্য বরাবর স্মারকলিপি দেন তারা। স্মারকলিপিতে ক্যাম্পাসকে মাদকমুক্ত করা, বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসা কেন্দ্রে একজন মনোবিজ্ঞানী নিয়োগ ও ক্যাম্পাসে একটি মানসম্পন্ন সুইমিং পুল নির্মাণের দাবি জানানো হয়।

জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের দ্বিতীয় হল শহীদ জিয়াউর রহমানের নামে নামকরণ করা হয়েছে। সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. আবদুল হামিদের সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের ৮৯ তম সিন্ডিকেটে হলটির এ নাম দেওয়া হয়। ১৯৯৫ সালের ২৯ আগস্ট তৎকালীন রাষ্ট্রপতি আব্দুর রহমান বিশ্বাস হলটি উদ্বোধন করেন।

বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ হলটির নামের শুরুতে শহীদ শব্দটি বাদ দেওয়ার দাবি জানিয়েছে। ছাত্রলীগের সভাপতি বলেন, আমরা মনে করি জিয়াউর রহমানের নামের পূর্বে শহীদ শব্দটি থাকলে শহীদদের অমর্যাদা হয়। তাই হলের নামের শহীদ শব্দটি বাতিল করার দাবি জানিয়েছি। জিয়াউর রহমানের নামের হল নিয়ে তাদেরর কোনো আপত্তি নেই বলেও জানান তিনি।

উপাচার্য অধ্যাপক হারুন-উর-রশিদ আসকারী বলেন, এই দাবি গুলোর সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন সম্পূর্ণ একমত। এর জন্য কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা