kalerkantho

শুক্রবার । ১৯ জুলাই ২০১৯। ৪ শ্রাবণ ১৪২৬। ১৫ জিলকদ ১৪৪০

ধর্ষণের শিকার প্রতিবন্ধীর সন্তান প্রসব, মামলা নিল পুলিশ

আরমান খান, লংগদু (রাঙামাটি)   

২৭ জুন, ২০১৯ ১৭:৩৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ধর্ষণের শিকার প্রতিবন্ধীর সন্তান প্রসব, মামলা নিল পুলিশ

'ধর্ষণের শিকার প্রতিবন্ধী নারীর সন্তান প্রসব' শিরোনামে জাতীয় দৈনিক কালের কণ্ঠের অনলাইনে সংবাদ প্রকাশের একদিন পর ভিকটিমের স্বজন ফাতেমা বেগমকে বাদী করে মামলা নিয়েছে পুলিশ। নারী ও শিশু নির্যাতন, ধর্ষণ এবং প্রাণনাশের হুমকির অভিযোগে দায়েরকৃত মামলায় অভিযুক্ত ধর্ষক শামীম হোসেনকে একমাত্র আসামি করা হয়েছে।  

গত ২৫ জুন উপজেলার ইসলামাবাদ গ্রামে ৯ মাস আগে ধর্ষণের শিকার এক বাকপ্রতিবন্ধী স্বামী পরিত্যক্তা নারী সন্তান প্রসব করেন। ওই দিনই প্রতিবন্ধী নারীর স্বজন (খালা) ফাতেমা বেগম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে বিচারের দাবি নিয়ে আসলে আইনগত ব্যবস্থা নিতে থানায় পাঠান ইউএনও। এ সময় পুলিশ ভিকটিমকে তার সদ্যোজাত সন্তানসহ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। 

ভিকটিম ও তার স্বজনরা গ্রামের অতিদরিদ্র ও সহজ-সরল হওয়ায় মামলা-মোকদ্দমার মতো জটিল পদক্ষেপ নেওয়ার ব্যবস্থা করতে পারেনি। ২৬ জুন বিকেলে পুলিশের সহযোগিতায় মামলা দায়ের করেন ফাতেমা বেগম। এবং ওই দিন বিকেল থেকে হাসপাতালের ওয়ার্ডের সামনে ভিকটিমের নিরাপত্তার জন্য দুজন সাদা পোশাকের পুলিশ পাহারায় বসানো হয়।

মামলা দায়েরের বিষয়ে ভিকটিমের খালা ফাতেমা বেগম বলেন, আমাদের সাথে এত বড় অন্যায় করার পরও গ্রামে কোনো বিচার পাইনি। এখন পুলিশের সহযোগিতায় মামলা করেছি। আজ (বৃহস্পতিবার) সকালে পুলিশ আমাকে নিয়ে ঘটনাস্থল জালাল মেম্বারের বাড়ি পরিদর্শন করেছে। আসামিকে পাওয়া যায়নি। আমি এই অন্যায়ের বিচার চাই।

মামলা দায়েরের বিষয়টি নিশ্চিত করে লংগদু থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রঞ্জন কুমার সামন্ত বলেন, নারী ও শিশু নির্যতন এবং ধর্ষণের বিশেষ ধারায় মামলা হয়েছে। পাশাপাশি আসামিকে ধরতে অভিযান অব্যহত আছে।
 

মন্তব্য