kalerkantho

শনিবার । ২০ জুলাই ২০১৯। ৫ শ্রাবণ ১৪২৬। ১৬ জিলকদ ১৪৪০

শহীদ জননী জাহানারা ইমাম স্মরণ

নতুন প্রজন্মকে দেশ প্রেমিক মানুষ হওয়ার আহবান কালের কণ্ঠ সম্পাদকের

খুলনা অফিস   

২৭ জুন, ২০১৯ ০৫:০৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নতুন প্রজন্মকে দেশ প্রেমিক মানুষ হওয়ার আহবান কালের কণ্ঠ সম্পাদকের

ছবি: কালের কণ্ঠ

বরেণ্য কথা সাহিত্যিক ও কালের কণ্ঠের সম্পাদক ইমদাদুল হক মিলন দেশ প্রেমিক মানুষ হওয়ার জন্য নতুন প্রজন্মের প্রতি আহবান জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, নতুন প্রজন্মকে প্রতিদিন একবার হলে, ‘আমরা সোনার বাংলা আমি তোমাকে ভালোবাসি’ বলতে হবে। মনে রাখতে প্রতিটি মানুষের দুজন মা, একজন গর্ভধারিনী ও অন্যজন জন্মভূমি। জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রেই মায়ের ঋণ শোধ করতে হয়। দেশ প্রেমের অনুভূতিকে বাঁচিয়ে রাখতে হবে।

গতকাল বুধবার সন্ধ্যায় খুলনা প্রেস ক্লাবের হুমায়ূন কবির বালু মিলনায়তনে শহীদ জননী জাহানারা ইমাম স্মরণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন। কালের কণ্ঠ-শুভসংঘ খুলনা জেলা শাখা এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। 

কালের সম্পাদক ইমদাদুল হক মিলন শহীদ জননীর স্মৃতি চারণ করে বলেন, একজন মানুষকে বিচার করতে হলে তাঁর সৃষ্টি ও কর্মকে বিশ্লেষণ করতে হবে। শহীদ জননী মহান মুক্তিযুদ্ধে দেশের জন্য নিজের সন্তানকে কোরবানি দিয়েছিলেন। আবার এক কঠিন সময় কেউ যখন সাহস দেখাতে পারেনি, তখন নারী হয়েও একাত্তরের ঘাতকদের বিরুদ্ধে আন্দোলন গড়ে তুলেছিলেন। তিনি শুধু সাহসীই নন, তিনি নানা প্রতিভার স্বাক্ষর রেখেছেন।
 
আম্মার স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে আবেগাপ্লুত ইমদাদুল হক মিলন বলেন, ‘তিনি আমাকে সন্তান মনে করতেন। তাঁর স্মৃতি কখনো ম্লান হওয়ার নয়। তিনি কঠিন সময়ে আমাদের যুদ্ধ করতে শিখিয়েছেন। নতুন প্রজন্মের কাছে তিনি অনুকরণীয় হয়ে থাকবেন। 

কালের কণ্ঠ-শুভসংঘের সভাপতি কানাই মন্ডলের সভাপতিত্বে ও কালের কণ্ঠের খুলনা ব্যুরো প্রধান গৌরাঙ্গ নন্দীর সঞ্চালনায় স্মরণ সভায় অন্যানের মধ্যে বক্তব্য দেন প্রবীন শিক্ষাবিদ অসিত বরণ ঘোষ, খুলনা প্রেস ক্লাবের সভাপতি এস এম হাবিব, আঞ্চলিক উপ-প্রধান তথ্য কর্মকর্তা ম জাভেদ ইকবাল, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. মনিরুল ইসলাম, খুলনা প্রেস ক্লাবের সাদারণ সম্পাদক মো. সাহেব আলী, মুক্তিযোদ্ধা শেখ ইলিয়াস, ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সাধারণ সম্পাদক মহেন্দ্র নাথ সেন, শুভসংঘের সংগঠক আয়শা আক্তার কেয়া প্রমুখ। 

অনুষ্ঠানের শুরুতে শহীদ জননী ও একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধে আত্মসর্গকারী সকল শহীদ স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা