kalerkantho

মঙ্গলবার। ১৬ জুলাই ২০১৯। ১ শ্রাবণ ১৪২৬। ১২ জিলকদ ১৪৪০

পরীক্ষা দিয়ে আর বাড়ি ফেরা হলো না তমা খাতুনের

চৌগাছা (যশোর) প্রতিনিধি   

২৬ জুন, ২০১৯ ২২:১৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পরীক্ষা দিয়ে আর বাড়ি ফেরা হলো না তমা খাতুনের

যশোরের চৌগাছায় সড়ক দুর্ঘটনায় তমা খাতুন (২৮) নামে এক সন্তানের জননীর মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। আজ বুধবার বিকেল ৬টার দিকে চৌগাছা-যশোর সড়কের সলুয়া ডিগ্রি কলেজের সামনে এই দুর্ঘটনা ঘটে। তিনি পরীক্ষা দিয়ে স্বামীর সঙ্গে বাড়ি ফিরছিলেন।

নিহত তমা খাতুন পৌর এলাকার চাঁদপুর গ্রামের মনোয়ার হোসেন ওরফে মানুর একমাত্র মেয়ে। থানা পুলিশ মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

প্রত্যক্ষদর্শী ও নিহতের স্বজনরা জানান, নিহত তমা খাতুন এমএ পরীক্ষা দেওয়ার জন্য তার স্বামী মাসুদ রানার সাথে মোটরসাইকেলযোগে যশোর যান। বিকেলে তারা নিজ বাড়িতে ফিরছিলেন। পথিমধ্যে সলুয়া ডিগ্রি কলেজ সংলগ্নে পৌঁছালে মোটরসাইকেলের পেছনের চাকা একটি ইটের খোয়ার ওপরে উঠে স্লিপ করে। এ সময় পেছনে বসে থাকা তমা খাতুন মোটরসাইকেল থেকে ছিটকে সড়কের উপর পড়ে যায়। মুহুর্তে একটি ট্রাক তাকে চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

স্থানীয়রা জানান, চৌগাছা-যশোর সড়কটি পুনঃনির্মাণের কাজ প্রায় এক বছর ধরে চলছে। কিন্তু আজও সড়কটি মেরামত করা সম্ভব হয়নি। কর্তৃপক্ষের গাফিলতিতে কাজ ধীর গতীতে চলছে বলে স্থানীয়দের অভিযোগ। ঘটনাস্থলে সড়কটি দীর্ঘদিন মাটি খোড়া অবস্থায় রয়েছে। খুড়ে রাখা সড়কের খোয়ার ওপর মোটরসাইকেল উঠে এই দুর্ঘটনা বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন।

খবর পেয়ে থানা পুলিশ ও নিহতের স্বজনরা ঘটনাস্থলে পৌঁছান। মর্মান্তিক এই মৃত্যুতে নিহতের পরিবারসহ এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

এ বিষয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রিফাত খান রাজিব বলেন, দুর্ঘটনার খবর পাওয়া মাত্রই সেখানে পুলিশ উপস্থিত হয়। ট্রাকটি জব্দ করা হলেও চালককে আটক করা যায়নি। তবে ট্রাকের চালককে আটকের চেষ্টা চলছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা