kalerkantho

বুধবার । ১৭ জুলাই ২০১৯। ২ শ্রাবণ ১৪২৬। ১৩ জিলকদ ১৪৪০

প্রাতঃভ্রমণ শেষে বাড়ি ফেরা হলো না দাদা-নাতির

সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি   

২৬ জুন, ২০১৯ ১৮:১৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



প্রাতঃভ্রমণ শেষে বাড়ি ফেরা হলো না দাদা-নাতির

নীলফামারীর সৈয়দপুরে পিকআপের ধাক্কায় দাদা-নাতির মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। আজ বুধবার সকাল ৮টার দিকে সৈয়দপুর-নীলফামারী সড়কের ওয়াপদা নয়াহাটে ওই দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হচ্ছেন দাদা রহমত উল্ল্যাহ (৫৫) ও নাতি আড়াই বছরের তাহসিন রেজা তুরাগ। এ সময় ঘাতক পিকআপ ও এর চালককে আটক করে থানা পুলিশের হাতে সোপর্দ করেছে স্থানীয় জনতা।

জানা গেছে, পূর্ব বোতলাগাড়ী ফকিরপাড়ার বাসিন্দা পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) অবসরপ্রাপ্ত কর্মচারী রহমত উল্ল্যাহ তার আড়াই বছরের নাতি তুরাগকে নিয়ে প্রতিদিনের মতো প্রাতঃভ্রমণ শেষে বাড়ি ফিরছিলেন। এ সময় সৈয়দপুর থেকে নীলফামারীগামী একটি খালি পিকআপ তাদেরকে পেছন থেকে ধাক্কায় দেয়। এতে তারা গুরুতর আহত হন। এরপর আশপাশের লোকজন তাদের উদ্ধার করে সৈয়দপুর ১০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে দাদা রহমত উল্ল্যার মৃত্যু ঘটে। আর নাতি তুরাগের অবস্থার অবনতি ঘটলে তাকে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, পিকআপটির প্রকৃত চালক হচ্ছেন সৈয়দপুর শহরের কয়াগোলাহাট এলাকার মঞ্জুরুল ইসলাম। ঘটনার দিন সকালে বাবার পিকআপটি চালাছিলেন তার ছেলে রিমন ইসলাম। ফলে তার (রিমন) কাছে চালকের কোনো বৈধ কাগজপত্র ছিল না।

সৈয়দপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শাহ্জাহান পাশা সড়ক দুর্ঘটনায় দাদা-নাতির নিহতের সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, এ ঘটনায় তিনজনকে আসামি করে একটি মামলা হয়েছে। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা