kalerkantho

রবিবার । ২১ জুলাই ২০১৯। ৬ শ্রাবণ ১৪২৬। ১৭ জিলকদ ১৪৪০

স্কুলছাত্রী অপহরণচেষ্টা, শালা-দুলাভাই কারাগারে

ধুনট (বগুড়া) প্রতিনিধি   

২৬ জুন, ২০১৯ ১৩:০৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



স্কুলছাত্রী অপহরণচেষ্টা, শালা-দুলাভাই কারাগারে

আটক রাসেল উদ্দিন ও তার দুলাভাই শাহীদ আলম। ছবি : কালের কণ্ঠ

বগুড়ার ধুনট উপজেলায় প্রেমের ফাঁদে ফেলে স্কুলছাত্রীকে অপহরণের চেষ্টার অভিযোগে ঘটনাস্থল থেকে শ্যালক ও দুলাভাইকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃতরা হলো রাজশাহীর দুর্গাপুর উপজেলার হায়াতপুর গ্রামের সাইদুর রহমানের ছেলে রাসেল উদ্দিন (২৫) ও তার দুলাভাই একই এলাকার আমোনিয়া গ্রামের বাবুল হোসেনের ছেলে শাহীদ আলম (৩৫)। বুধবার সকাল ১১টার দিকে ধুনট থানা থেকে আদালতের মাধ্যমে তাদের বগুড়া জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে। 

মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার গোপালনগর ইউনিয়নের আড়িয়ামোহন গ্রামের আদর্শ কৃষক ফজলার রহমানের মেয়ে স্থানীয় খাটিয়ামারি উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী। মোবাইল ফোনের রং নম্বর থেকে ওই ছাত্রীর সাথে বখাটে রাসেল উদ্দিনের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। 

রাসেল উদ্দিন নিজের প্রকৃত নাম-পরিচয় গোপন রেখে ছদ্ম নামে প্রায় ৫ মাস ধরে ওই ছাত্রীর সাথে প্রেম করছে। এ অবস্থায় মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে রাসেল তার দুলাভাইকে সাথে নিয়ে আড়িয়ামোহন গ্রামে আসে। একপর্যায়ে স্কুলছাত্রীকে অপহরণের উদ্দ্যেশে কৌশলে বাড়ি থেকে বের করে জোরপূর্বক সিএনজিচালিত অটোরিকাশায় তোলার চেষ্টা করে। এ সময় স্কুলছাত্রীর চিৎকারে স্থানীয় লোকজন আড়িয়ামোহন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনের রাস্তা থেকে রাসেল ও তার দুলাভাইকে আটক করে। এদিকে জনতার উপস্থিতি টের পেয়ে অটোরিকশার অজ্ঞাতপরিচয় চালক ঘটনাস্থল থেকে কৌশলে পালিয়ে গেছে। 

মঙ্গলবার সন্ধ্যার দিকে সংবাদ পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে রাসেল ও তার দুলাভাইকে গ্রেপ্তার করেছে। এ ঘটনায় স্কুলছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে বখাটে রাসেল উদ্দিন ও তার দুলাভাই শাহীদ আলমের বিরুদ্ধে থানায় অপহরণ মামলা দায়ের করেছে।

ধুনট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইসমাইল হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, গ্রেপ্তারকৃত দুই আসামি প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছে। স্কুলছাত্রীর জবানবন্দি রেকর্ড করার জন্য বগুড়া আদালতে পাঠানো হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা