kalerkantho

মঙ্গলবার। ১৬ জুলাই ২০১৯। ১ শ্রাবণ ১৪২৬। ১২ জিলকদ ১৪৪০

ফিল্মি স্টাইলে মোটরসাইকেল ছিনতাই, শহরজুড়ে আতঙ্ক

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি   

২৬ জুন, ২০১৯ ১২:৩৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ফিল্মি স্টাইলে মোটরসাইকেল ছিনতাই, শহরজুড়ে আতঙ্ক

হবিগঞ্জ শহরের ৩ নম্বর পুল এলাকায় এভাবেই ফিল্মি স্টাইলে পিস্তল ঠেকিয়ে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের কর্মকর্তার মোটরসাইকেল ছিনতাই করে নিয়ে যায় একজন। ছবিটি সিসিটিভি ফুটেজ থেকে সংগৃতীত।

হবিগঞ্জ শহরের ৩ নম্বর পুল এলাকায় ফিল্মি স্টাইলে পিস্তল ঠেকিয়ে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের পরিদর্শক মিজানুর রহমানের মোটরসাইকেল ছিনতাই করে নিয়ে গেছে ছিনতাইকারী চক্রের এক সদস্য। এ সময় কোনো রকম পালিয়ে গিয়ে নিজেকে রক্ষা করে একই অফিসের স্টাফ মাহবুব। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় জেলা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর কার্যালয়ের সামনে এ ঘটনাটি ঘটে। 

মোটরসাইকেল ছিনতাইয়ের ঘটনার পুরো দৃশ্যটি সিসি ক্যামেরায় ধরা পড়েছে।

জেলা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের উপপরিদর্শক সিদ্দিকুর রহমান জানান, পরিদর্শক মিজানুর রহমান তার ব্যবহৃত ১০০ সিসির ডিসকভারি মোটরসাইকেলটি নিচতলার একটি ব্লকে রেখে দ্বিতীয় তলায় অফিসে কাজ করছিলেন। হঠাৎ এক যুবক এসে মোটরসাইকেলটির তালা ভাঙতে শুরু করে। এ সময় দৃশ্যটি দেখে তিনি তার অফিসের স্টাফ মাহবুবকে মোটরসাইকেলটি দেখে আসতে পাঠান। মাহবুবকে দেখেই ওই ছিনতাইকারী দ্রুত তার কোমরে থাকা পিস্তল বের করে মাহবুবের দিকে থাক করে। এ সময় সে মাহবুবের দিকে এগিয়ে আসলে মাহবুব দৌড়ে গিয়ে আত্মরক্ষা করে। পরে দ্রুত ওই ছিনতাইকারী মোটরসাইকেলটি নিয়ে পালিয়ে যায়। একপর্যায়ে কয়েকজন এগিয়ে গেলেও ছিনতাইকারীর আর কোনো পাত্তা পাওয়া যায়নি। 

খবর পেয়ে হবিগঞ্জ সদর মডেল থানা পুলিশ ও ডিবি পুলিশের একটি টিম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এদিকে, হবিগঞ্জ শহরে এই প্রথম পিস্তল ঠেকিয়ে মোটরসাইকেল ছিনতাইয়ের ঘটনায় সর্বত্র আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। দিন দিন মোটরসাইকেল ছিনতাইয়ের ঘটনা উদ্বেগজনক হারে বাড়লেও প্রশাসন যেন নির্বিকার। মাঝে মধ্যে দু-একজন চোরকে আটক করা হলেও মুলহোতারা রয়ে যায় ধরাছোঁয়ার বাইরে। যে কারণে থামানো যাচ্ছে না মোটরসাইকের চুরি।

অপরদিকে, গত এক মাসে হবিগঞ্জ শহরসহ আশপাশের এলাকাগুলো থেকে ১৫/২০টি মোটরসাইকেল চুরি হয়েছে। যা থেকে বাদ যায়নি জনপপ্রতিনিধি থেকে শুরু করে প্রশাসনের কর্মকর্তারাও। 

হবিগঞ্জ সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সহিদুর রহমান জানান, সিসি ক্যামেরায় পাওয়া ছবি দিয়ে ছিনতাইকারীকে শনাক্ত করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে পুলিশ।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা