kalerkantho

বুধবার । ২৪ জুলাই ২০১৯। ৯ শ্রাবণ ১৪২৬। ২০ জিলকদ ১৪৪০

বেনাপোলে দুই পাচারকারীসহ ছয় নারী-পুরুষ আটক

বেনাপোল (যশোর) প্রতিনিধি   

২৫ জুন, ২০১৯ ০২:২৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বেনাপোলে দুই পাচারকারীসহ ছয় নারী-পুরুষ আটক

ছবি: কালের কণ্ঠ

যশোরের বেনাপোল সীমান্তে অভিযান চালিয়ে দুই পাচারকারীসহ ছয় নারী-পুরুষকে আটক করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) সদস্যরা। সোমবার দুপুরে সাদীপুর সীমান্ত থেকে এদের আটক করা হয়।
 
আটকরা- হলো মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল থানার আলীশারকুল গ্রামের তরুণ মিয়ার ছেলে সুমন মিয়া (১৮), গোপালগঞ্জ জেলার গোপূনাথপুর এলাকার হালিম মিয়ার ছেলে সোনা মিয়া (৩৫), পটুয়াখালী জেলার মির্জাগঞ্জের কাঞ্চন হাওলাদারের মেয়ে সাথী বেগম (২৭), একই এলাকার রহমান মোল্যার মেয়ে সোনিয়া পারভীন (১৬), বাউফল এলাকার মৃত সাহেব আলীর মেয়ে সীমা বেগম (৪০) ও দশমিনা এলাকার মৃত বিশ্বস্বর শীলের মেয়ে গোলাপী সরকার (৪১)। 
 
আটক পাচারকারীদ্বয় হলো, বেনাপোল পোর্ট থানার সাদীপুর গ্রামের এরশাদ আলীর বিশ্বাসের ছেলে জাহিদ বিশ্বাস (৩২) ও একই গ্রামের আব্দার আলীর ছেলে লাল্টু হোসেন (৩২)। 
 
বেনাপোল চেকপোস্ট বিজিবি আইসিপি ক্যাম্পের সুবেদার বাকি বিল্লাহ জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারি সাদিপুর সীমান্ত দিয়ে জাহিদ ও লাল্টু নামে দুই দালাল একদল নারী পুরুষকে ভারতে পাচার করবে। 
 
এমন খবরের ভিত্তিতে সাদিপুর সীমান্তে অভিযান চালিয়ে পাচারকারী জাহিদ, লাল্টুসহ ৮ জনকে আটক করা হয়। আটক জাহিদ ও লাল্টুর বিরুদ্ধে মানব পাচার আইনে মামলা দিয়ে আটককৃতদের বেনাপোল পোর্ট থানায় সোপর্দ করা হয়েছে। 
 
এলাকার লোকজন জানান, জাহিদ দীর্ঘদিন যাবৎ সাদিপুর সীমান্তে একটি চোরাচালানি সিন্ডিকেট তৈরি করে ভারত থেকে ফেনসিডিল, মদ, গাঁজা, হেরোইন, অস্ত্র ও নারী শিশু পাচার করে থাকে। এসব কাজের জন্য তার রয়েছে প্রায় ৪০/৫০ জন যুবক। জাহিদকে আটক করার জন্য স্থানীয় প্রশাসন তার বাড়িতে অনেকবার অভিযান চালিয়েছেন কিন্তু সে বিভিন্ন জায়গায় পালিয়ে থাকার কারণে তাকে আটক করা যায়নি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা