kalerkantho

সোমবার। ১৯ আগস্ট ২০১৯। ৪ ভাদ্র ১৪২৬। ১৭ জিলহজ ১৪৪০

নকলা মেয়র লিটনের ওপর হামলার ঘটনায় আটক ৩

শেরপুর প্রতিনিধি   

২৪ জুন, ২০১৯ ১৭:২৫ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



নকলা মেয়র লিটনের ওপর হামলার ঘটনায় আটক ৩

শেরপুরে নকলা পৌরসভার মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক মো. হাফিজুর রহমান লিটনের ওপর হামলা, শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত ও গলাটিপে হত্যাচেষ্টার অভিযোগে থানায় একটি মামলা হয়েছে। মেয়র লিটন বাদী হয়ে রবিবার রাতে নকলা থানায় মামলাটি দায়ের করেছেন। মামলায় সদ্যঃসমাপ্ত নকলা উপজেলা নির্বাচনে বিজয়ী আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান শাহ মো. বোরহান উদ্দিনের বড় ভাই শাহ মো. ফুয়াদকে প্রধান আসামি করে আরো ৫/৬ জনকে আসামি করা হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ অভিযান চালিয়ে তিনজনকে আটক করেছে। আটককৃতরা হলো রাকিব হাসান (২২), সেলিম হাসান ওরফে জীবন (২০) এবং শাহরিয়ার তালুকদার সৌরভ (২২)। 

রবিবার সন্ধ্যার দিকে অফিসের কাজ সেরে একটি মোটরসাইকেলে করে উপজেলা শহরে আসছিলেন পৌর মেয়র হাফিজুর রহমান লিটন। পৌরসভার প্রধান ফটকের সামনে এলে নবনির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান শাহ মো. বোরহান উদ্দিনের বড় ভাই শাহ মো. ফুয়াদ লোকজন নিয়ে তাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকেন। একপর্যায়ে তার মোটরসাইকেলের ওপর হামলা করে তাকে মাটিতে ফেলে দিয়ে লাঞ্ছিত করে গলা টিপে ধরে হত্যার চেষ্টা চালানো হয়। এ সময় সহকর্মীরা এগিয়ে এলে পৌর মেয়র লিটন প্রাণে রক্ষা পান বলে অভিযোগ করা হয়েছে।

এদিকে, ২৪ জুন সোমবার পৌর পরিষদের সদস্যরা নকলা পৌরসভা ভবনে তালা ঝুলিয়ে মেয়র লিটনের ওপর হামলার প্রতিবাদ ও দোষীদের অবিলম্বে গ্রেপ্তার ও বিচার দাবি করেছেন। পৌর সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকেও এ দিন কর্মবিরতি পালন করা হয়। যে কারণে এ দিন পৌরসভার সকল প্রকার দাপ্তরিক কার্যক্রম বন্ধ ছিল।
 
নকলা পৌরসভার কাউন্সিলর ছায়েদুর রহমান সংবাদকর্মীদের জানান, পৌর মেয়রের ওপর হামলার বিচার না হওয়া পর্যন্ত নকলা পৌরসভার সকল দাপ্তরিক কাজ বন্ধ থাকবে। তবে পৌর সচিব মনিরুল হাসান জানান, মেয়র মহোদায়ের অনুরোধে জনদুর্ভোগ বিবেচনায় মঙ্গলবার থেকে দাপ্তরিক কাজ চললেও মেয়রের ওপর হামলার বিচার না হওয়া পর্যন্ত প্রতিবাদ কর্মসূচি চলবে। 

নকলা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সজীব রহমান জানান, পৌর মেয়র হাফিজুর রহমান লিটনের ওপর হামলার ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে তিনজনকে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় মেয়র লিটন বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

খবরটি ইউনিকোড থেকে বিজয়ে নিতে ব্যবহার করুন কালের কণ্ঠের বাংলা কনভার্টার-
https://www.kalerkantho.com/home/converter

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা