kalerkantho

মঙ্গলবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১২ রবিউস সানি     

জামালগঞ্জে হাত-মুখ বেঁধে গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ

হাওরাঞ্চল প্রতিনিধি   

১৮ জুন, ২০১৯ ২১:০৫ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



জামালগঞ্জে হাত-মুখ বেঁধে গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ

সুনামগঞ্জের জামালগঞ্জে ঘুমন্ত অবস্থায় হাত-মুখ বেঁধে সখিনা আক্তার (২২) (ছদ্মনাম) নামে এক গৃহবধূকে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে সুবাস মিয়া (৩০) নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে আভিযোগ পাওয়া গেছে।

আজ মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে উপজেলার ফেনারবাগ ইউনিয়নের গজারিয়া গ্রামে বরবর এ ঘটনাটি ঘটে। ধর্ষক সুবাস মিয়া ওই গ্রামের মৃত জাহের উদ্দিনের ছেলে এবং সে ওই ইউনিয়নের ৩ নাম্বার ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আলী আহম্মদের ভাতিজা। ওই ধর্ষকের বিরুদ্ধে এলাকায় এ ধরনের আরো একাধিক অভিযোগ রয়েছে।

ভুক্তভোগীর পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, আজ মঙ্গলবার সকাল থেকেই সুনামগঞ্জের জামালগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শুরু হয়। নির্বাচনে ভোট দেওয়ার জন্য ওই দিন দুপুর ১২টার দিকে উপজেলার গজারিয়া গ্রামের গৃহবধূ সখিনাকে (ছদ্ম নাম) ঘরে রেখে তার স্বামী ও ভাসুরসহ ঘরের অন্যান্য লোকজন ভোট কেন্দ্রে চলে যান। তখন ওই গৃহবধূ ঘরের দরজা বন্ধ করে ভেতরে গিয়ে ঘুমিযে পড়েন। এরই সুযোগে একই গ্রামের মৃত জাহের উদ্দিনের ছেলে সুবাস কৌশলে ওই ঘরের পেছনের একটি বেড়া কেটে সে ঘরে ঢুকে প্রথমেই কাপড় দিয়ে ঘুমিয়ে থাকা গৃহবধূর মুখ ও হাত বেঁধে তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে দৌড়ে পালিয়ে যায়। পরে ভোট কেন্দ্র থেকে ভোট দিয়ে ওই গৃহবধূর স্বামীসহ অন্যান্য লোকজন বাড়িতে গিয়ে তাদের ঘরের দরজা বন্ধ দেখে তারা গৃহবধূ সখিনাকে ডাকাডাকি করেও তার কোনো সাড়া না পেয়ে তাদের মনে সন্দেহ দেখা দেয়। পরে তারা ঘরের পেছনে গিয়ে বেড়া ভাঙা দেখে তারা ওই ভাঙা স্থান দিয়ে ঘরের ভেতরে ঢুকে হাত- মুখ বাঁধা অবস্থায় ধর্ষিতা ওই গৃহবধূকে উদ্ধার করে। পরে সে তাদের কাছে বিষয়টি খুলে বলে।

এ ব্যাপারে ধর্ষক সুবাসের চাচা ইউপি সদস্য আলী আহম্মদ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আমরা সবাই নির্বাচনের ভোটগ্রহণ নিয়ে ব্যস্ত থাকার সুযোগে আমার ওই লম্পট ভাতিজা এমন একটি নেক্কারজনক ঘটনা ঘটিয়েছে তা অত্যন্ত লজ্জাজনক। তবে বিষয়টি আমরা সামাজিকভাবে বসে মীমাংসা করা চেষ্টা করব।

জামালগঞ্জ থানার ওসি মো. সাইফুল আলম কালের কণ্ঠকে বলেন, আমি সাড়া দিনই নির্বাচন নিয়ে ব্যস্ত রয়েছি এবং এ বিষয়ে আমি এখনো কোনো খবর পাইনি। তবে খোঁজ নিয়ে এ ব্যাপারে প্রয়োজনী ব্যবস্থা  নেয়া হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা