kalerkantho

রবিবার । ১৯ জানুয়ারি ২০২০। ৫ মাঘ ১৪২৬। ২২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

হুমায়ূন আহমেদের প্রিয় বাউলশিল্পীর পাশে সান্দিকোনা কলেজ কর্তৃপক্ষ

কেন্দুয়া (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি   

১৭ জুন, ২০১৯ ২০:৫৩ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



হুমায়ূন আহমেদের প্রিয় বাউলশিল্পীর পাশে সান্দিকোনা কলেজ কর্তৃপক্ষ

সমকালীন বাংলা সাহিত্যের জনপ্রিয় কথাশিল্পী প্রয়াত হুমায়ূন আহমেদের প্রিয় বাউলশিল্পী অসুস্থ ইসলাম উদ্দিনের একমাত্র সন্তান অষ্টম শ্রেণিতে পড়ুয়া মেয়েটির অবশেষে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত লেখাপড়ার দায়িত্ব নেওয়ার আশ্বাস দেওয়া হয়েছে। নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলার ঐতিহ্যবাহী শতবর্ষী বিদ্যাপীঠ সান্দিকোনা স্কুল অ্যান্ড কলেজ কর্তৃপক্ষ এ দায়িত্ব নিয়েছে।

আজ সোমবার ওই বিদ্যাপীঠের অধ্যক্ষ তার এক সহকর্মীকে সঙ্গে নিয়ে ওই বাউলশিল্পীর বাড়িতে গিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে এ ঘোষণা দেন। বাউলশিল্পীর গ্রামের বাড়ি উপজেলার সান্দিকোনা ইউনিয়নের খিদিরপুরে।

জানা গেছে, প্রয়াত লেখক হুমায়ূন আহমেদের খুব কাছের মানুষ ছিলেন বাউলশিল্পী ইসলাম উদ্দিন। এর সুবাদে হুমায়ূন আহমেদের বিভিন্ন চলচ্চিত্র ও নাটকসহ বিজ্ঞাপনচিত্রেও কাজ করার সুযোগ পেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু দীর্ঘদিন ধরে এখন অসুস্থ এ বাউলশিল্পী। অর্থাভাবে তিনি প্রয়োজনীয় চিকিসৎসাও করাতে পারছেন না। এমনকি অষ্টম শ্রেণিতে পড়ুয়া তার একমাত্র মেয়েটির পড়াশোনাও বন্ধ হওয়ার উপক্রম হয়েছিল। সে বর্তমানে উপজেলার ঐতিহ্যবাহী শতবর্ষী বিদ্যাপীঠ সান্দিকোনা স্কুল অ্যান্ড কলেজে পড়াশোনা করছে। এ অবস্থায় নেত্রকোনা জেলা প্রশাসনসহ বিভিন্ন ব্যক্তি ও সংগঠনের কাছ থেকে ইতিমধ্যে কিছু আর্থিক সহায়তাও পেয়েছেন ইসলাম উদ্দিন।

তাছাড়া স্থানীয় সংসদ সদস্য অসীম কুমার উকিলের পক্ষ থেকেও ওই বাউলশিল্পীর খোঁজ-খবর নেওয়া হয়েছে। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে সোমবার দুপুরে সান্দিকোনা স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ বাবুল আহম্মদ সহকর্মী প্রভাষক কামরুল কবির ভূঁইয়াকে সঙ্গে নিয়ে বাউলশিল্পী ইসলাম উদ্দিনের বাড়িতে ছুটে যান। এ সময় তারা গুণী এ বাউলশিল্পী খোঁজ-খবর নেন এবং তাঁর হাতে নগদ পাঁচ হাজার টাকা তুলে দেন। তাছাড়া অষ্টম শ্রেণিতে পড়ুয়া তার একমাত্র মেয়েটির দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত লেখাপড়ার সার্বিক দায়িত্বও প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে নেওয়া হবে আশ্বাস দেওয়া হয়।

বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে সান্দিকোনা স্কুল অ্যান্ড কলেজের প্রভাষক কামরুল কবির ভূঁইয়া কালের কণ্ঠকে জানান, প্রয়াত লেখক হুমায়ূন আহমেদের প্রিয় বাউলশিল্পী ইসলাম উদ্দিন স্থানীয় সাংস্কৃতিক অঙ্গণেও একজন পরিচিত মুখ। জটিল রোগে আক্রান্ত হয়ে তিনি এখন কষ্টে আছেন। অর্থাভাবে প্রয়োজনীয় চিকিৎসাও করাতে পারছেন তিনি। এ অবস্থায় একমাত্র মেয়েটির পড়াশোনা নিয়েও তিনি উদ্বিগ্ন ছিলেন। তাই মানবিক কারণে এবং সামাজিক দায়িত্ববোধ থেকে আমরা আমাদের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে গুণী এ বাউল কন্যার দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত পড়াশোনার সার্বিক দায়িত্ব নেওয়ার আশ্বাস দেওয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে বাউলশিল্পী ইসলাম উদ্দিন সাংবাদিকদের জানান, অর্থাভাবে আমার মেয়েটির পড়াশোনা বন্ধ হওয়ার উপক্রম হয়েছিল। এ নিয়ে আমি খুই উদ্বিগ্ন ও দুঃশ্চিন্তায় ছিলাম। কিন্তু সান্দিকোনা স্কুল অ্যান্ড কলেজ কর্তৃপক্ষ আমার মেয়ের দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত পড়াশোনার দায়িত্ব নেওয়ায় সেই দুঃশিচন্তা এখন দূর হয়েছে। এর জন্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান কর্তৃপক্ষের প্রতি আমি কৃতজ্ঞ।

তিনি আরো বলেন, আমার অসুস্থতার খবরে নেত্রকোনা জেলা প্রশাসনসহ যারা আমার খোঁজ-খবর নিয়েছে এবং পাশে এসে দাঁড়িয়েছে তাঁদের প্রতিও আমি কৃতজ্ঞ।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা