kalerkantho

শনিবার । ২০ জুলাই ২০১৯। ৫ শ্রাবণ ১৪২৬। ১৬ জিলকদ ১৪৪০

সীতাকুণ্ডে গলায় ফাঁস দিয়ে কলেজছাত্রীর আত্মহত্যা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৬ জুন, ২০১৯ ২৩:৪০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সীতাকুণ্ডে গলায় ফাঁস দিয়ে কলেজছাত্রীর আত্মহত্যা

প্রতীকী ছবি

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে এক কলেজছাত্রী আত্মহত্যা করেছে। ‌আজ রবিবার উপজেলার বারৈয়াঢালা ইউনিয়নের টেরিয়াইল গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত ছাত্রীর নাম

আরিকা সুলতানা উর্মি (১৭)। সে ওই এলাকার চান মিয়া সওদাগরের বাড়ির সফিউল আলমের মেয়ে। খবর পেয়ে পুলিশ লাশটি উদ্ধার করেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সীতাকুণ্ড সরকারী মহিলা কলেজের ইন্টার মিডিয়েটের বাণিজ্য বিভাগের ছাত্রী আরিকা সুলতানা উর্মি কলেজের যাবার নাম করে ঘর থেকে বের হয়। বেলা দেড়টায় সে আবার বাড়িতে ফিরে যায়। এরপর দুপুরের খাবার শেষে নিজ ঘরে ঘুমাতে যায়। বিকালে বাড়ির লোকজন তাকে ডাকতে গেলে তাকে গলায় ফাঁস দিয়ে ঝুলতে দেখা যায়।

এতে তারা চিৎকার চেঁচামেচি শুরু করলে আশপাশের লোকজন ছুটে আসে। এরপর স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানকে খবর দিলে তিনি পুলিশে খবর দেন। খবর পেয়ে বিকালে সীতাকুণ্ড থানার এস আই আবদুল মজিদ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করেন। 

বারৈয়াঢালার ইউপি চেয়ারম্যান মো. রেহান উদ্দিন রেহান বলেন, ওই কলেজ ছাত্রী দুপুরের খাবার শেষে নিজ ঘরের তিরের সঙ্গে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে। আমরা ঘটনা জানতে পেরে পুলিশে খবর দিয়েছি। তবে কেন সে আত্মহত্যা করেছে তা জানা যায়নি। 

এদিকে ছাত্রী কলেজে যাবার কথা বলে ঘর থেকে বের হলেও সীতাকুণ্ড মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ জরিনা আখতার জানান, এখন কলেজ বন্ধ চলছে। তাই কলেজে আসার কোনো প্রশ্নই আসে না। কলেজের কথা বলে সে অন্য কোথায় গেছে তা জানা দরকার।

ঘটনাস্থল পরিদর্শনকারী এস আই আবদুল মজিদ জানান, পরিবারকে কলেজে যাচ্ছে জানিয়ে উর্মি সকালে বাড়ি থেকে বের হয়ে আবার বেলা দেড়টায় ফিরে আসে। এরপর খাবার খেয়ে নিজ ঘরে গিয়ে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেছে। কিন্তু কি কারণে সে এমনটা করেছে তা জানা যায়নি। ঘটনাস্থলে কোনো চিরকূট অথবা অন্য কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি।

সীতাকুণ্ড মডেল থানার ওসি (ইন্টেলিজেন্স) সুমন বনিক জানান এ বিষয়ে অপমৃত্যু মামলা দায়ের হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা