kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২৭ জুন ২০১৯। ১৩ আষাঢ় ১৪২৬। ২৩ শাওয়াল ১৪৪০

চাঁদপুরে তিন নদীর মোহনায় ডুবে গেল কুমিল্লার কলেজছাত্র রাফিদ

চাঁদপুর প্রতিনিধি   

১২ জুন, ২০১৯ ১৯:৩৫ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



চাঁদপুরে তিন নদীর মোহনায় ডুবে গেল কুমিল্লার কলেজছাত্র রাফিদ

চাঁদপুরের তিন নদীর মোহনায় বেড়াতে এসে নিখোঁজ হয়েছেন কুমিল্লার এক কলেজছাত্র। বুধবার দুপুরে শহরের বড় স্টেশনের অদূরে পদ্মা-মেঘনার সংযোগস্থলে জেগে উঠা চরে এই দুর্ঘটনা ঘটে। সন্ধ্যা পর্যন্ত হতভাগা নিখোঁজ এই ছাত্রের কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি।

নিখোঁজ রাফিদুল ইসলাম (১৮) কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ড মডেল কলেজের উচ্চ মাধ্যমিক দ্বিতীয় বর্ষের বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্র। তার বাবার নাম রফিকুল ইসলাম। তিনি বড়বিভাগের কর্মকর্তা। কুমিল্লা শহরের টমচম ব্রিজ এলাকার পাশে পোস্ট অফিস কলোনীতে রাফিদুলের বাসা। এক ভাই, একবোনের মধ্যে সে ছিল ছোট।

তার সঙ্গে আসা বন্ধুরা জানান, রাফিদুলসহ ৮ বন্ধু চাঁদপুরের তিন নদীর মোহনায় বেড়াতে আসেন। দুপুরে তারা একটি ট্রলার নিয়ে মোহনার অদূরে জেগে উঠা চরে সাঁতার কাটতে যান। এসময় রাফিদুল ও তাদের আরেক বন্ধু হাসিবুল ডুবে যেতে থাকে। এদের মধ্যে হাসিবুলকে রক্ষা করতে পারলেও চোখের সামনে নদীর স্রোতে ভেসে যায় রাফিদুল। তাদের সঙ্গে আসা শাখওয়াত হোসেন নামে আরেকজন জানান, তাদের ৮ বন্ধুর মধ্যে ৭ জনই কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ড কলেজ কলেজের ছাত্র। কুমিল্লা শহরের বিভিন্ন এলাকায় তাদের বাসা। 

এদিকে, সাঁতার কাটতে গিয়ে বন্ধুদের সহায়তায় বেঁচে যাওয়া হাসিবুল ইসলাম অসুস্থ হয়ে পড়ায় তাকে চাঁদপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার বাবা সেলিম হোসেন কুমিল্লায় পানি উন্নয়ন বোর্ডে কর্মরত। দুর্ঘটনার পর থেকে অন্য বন্ধুরাও তাদের সতীর্থ রাফিদুলকে হারিয়ে মানসিকভাবে ভেঙে পড়েন। 

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বুধবার দুপুরে কুমিল্লা থেকে চাঁদপুরের তিন নদীর মোহনায় পৌঁছে বন্ধুদের সঙ্গে সেলফি ও গ্রুপ ছবি তুলেন। কান্না করতে করতে এমন কথা জানান, আরেক বন্ধু সুদীপ্ত। 

অন্যদিকে, এই ঘটনার সংবাদ পেয়ে ফায়ারসার্ভিস ও নৌপুলিশ ঘটনাস্থলে ছুটে যায়। চাঁদপুর জেলা প্রশাসনের নির্দেশে এসময় তারা উদ্ধার অভিযান শুরু করে। এসময় সেখানে ছুটে যান অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ জামান, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কানিজ ফাতেমা, নৌপুলিশের পরিদর্শক আবু তাহের খান, ফায়ারসার্ভিসের সহকারী উপ পরিচালক ফরিদ আহমেদ। বিকেলে ঘটনাস্থলে গিয়ে নিখোঁজ কলেজ ছাত্রের অনুসন্ধান নিয়ে খোঁজখবর নেন, চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক মো. মাজেদুর রহমান খান।

কিন্তু সন্ধ্যা পর্যন্ত ডুবুরিদল অভিযান চালিয়েও নিখোঁজ রাফিদুলের কোনো সন্ধান পায়নি। এদিকে, নিখোঁজের খোঁজ না পর্যন্ত তার অনুসন্ধান চালিয়ে যাবে। এমনটা জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। তবে আজ সন্ধ্যা পর্যন্ত উদ্ধার অভিযান স্থগিত করা হয়েছে। তবে আগামীকাল বৃহস্পতিবার সকাল থেকে আবারো অভিযান শুরু হবে। ধারণা করা হচ্ছে, স্রোতের টানে ভাটিতে ভেসে গেছে হতভাগা রাফিদুল। 

বুধবার বিকেলে সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে, বর্ষা শুরু হওয়ায় তিন নদীর মোহনার অদুরে জেগে উঠা চরটি এখন বেশ ঝুঁকিপূর্ণ। এরপরও প্রতিদিন শত শত ভ্রমনপিপাসু সেখানে ছুটে যাচ্ছেন। এমন পরিস্থিতিতে চাঁদপুরের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রিট মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ জামান এই চরটিতে সতর্কতার সঙ্গে লোকজনদের চলাচলের জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা