kalerkantho

রবিবার। ১৬ জুন ২০১৯। ২ আষাঢ় ১৪২৬। ১২ শাওয়াল ১৪৪০

বিদ্যুৎ বিল বকেয়া, সংযোগ বিচ্ছিন্ন করতে গিয়ে রক্তাক্ত লাইনম্যান

জলঢাকা (নীলফামারী) প্রতিনিধি   

১২ জুন, ২০১৯ ১৮:২০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বিদ্যুৎ বিল বকেয়া, সংযোগ বিচ্ছিন্ন করতে গিয়ে রক্তাক্ত লাইনম্যান

নীলফামারীর জলঢাকায় বিদ্যুৎ বিল বকেয়া থাকায় সংযোগ বিচ্ছিন্ন করতে যাওয়ায় নীলফামারী পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি লাইনম্যানের মাথায় আঘাত করে রক্তাক্ত করেছে। এ ঘটনায় পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি এজিএম তরিকুল ইসলাম বাদী হয়ে থানায় একটি মামলা করেছেন। অভিযুক্তের নাম আনোয়ার হোসেন। তিনি উপজেলা জাতীয় ছাত্র সমাজ আহ্বায়ক।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার পূর্ব বালাগ্রাম মন্থের ডাঙ্গা এলাকায় সোমবার সকাল ১১টায় সেচ সংযোগের বিদ্যুৎ বিল বকেয়া থাকায় লাইন সংযোগ বিচ্ছিন্ন করার জন্য গেলে আনোয়ার হোসেন অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে। একপর্যায়ে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কর্মচারীরা সংযোগ বিচ্ছিন্ন করতে চাইলে আনোয়ার হোসেন দৌড়ে গিয়ে বাড়ি থেকে লোহার রড নিয়ে এসে লাইনম্যান গ্রেড ১ কৃষ্ণ চন্দ্র সরকারকে মাথার মাঝ বরাবর আঘাত করে গুরতর রক্তাক্ত জখম করে। পরে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। 

জলঢাকা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার ডা. মাহাফুজুল হক সেনিন বলেন, ওই রোগীর মাথায় কয়েকটি সেলাই দেওয়া হয়েছে। তাকে উন্নত চিকিৎসা দিতে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

বুধবার জলঢাকা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান কালের কণ্ঠকে বলেন, পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি এজিএম তরিকুল ইসলাম বাদী হয়ে একটি এজাহার দিয়েছেন। প্রাথমিক তদন্তে ঘটনার সত্যতা পাওয়ায় ও সরকারি কাজে বাধা দেওয়ায় মামলা নথিভুক্ত করা হয়েছে। আসামি গ্রেপ্তারের জোর প্রক্রিয়া অব্যাহত রয়েছে। 

এ বিষয়ে উপজেলা ছাত্র সমাজ আহ্বায়ক আনোয়ার হোসেন মুঠোফোনে বলেন, বকেয়া বিলের সাথে অতিরিক্ত টাকা দাবি করায় ওই লাইনম্যানের সাথে বাকবিতণ্ডা হয়। তবে তার গায়ে আমি হাত দিইনি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা