kalerkantho

সোমবার। ১৭ জুন ২০১৯। ৩ আষাঢ় ১৪২৬। ১৩ শাওয়াল ১৪৪০

স্কুল মাঠের দখল নিল সড়ক নির্মাণসামগ্রী

অভয়নগর (যশোর) প্রতিনিধি   

২৬ মে, ২০১৯ ১৬:২০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



স্কুল মাঠের দখল নিল সড়ক নির্মাণসামগ্রী

যশোরের অভয়নগর উপজেলার ধোপাদী উত্তর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও ধোপাদী আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের মাঠে সড়ক নির্মাণের সামগ্রী রেখে কাজ করছে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। খেলাধুলা করতে না পারার অভিযোগ শিক্ষার্থীসহ এলাকাবাসীর। দুই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষক ও পরিচালনা পর্ষদ পরস্পরবিরোধী বক্তব্য দিয়েছেন। দ্রুত সময়ের মধ্যে মালামাল অপসারণের কথা বলেছে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দিয়েছেন শিক্ষা কর্মকর্তা।  

সরেজমিনে দেখা যায়, পাশাপাশি দুটি স্কুলের একটি খেলার মাঠ। কিন্তু স্কুলসংলগ্ন সড়ক নির্মাণের জন্য মাঠের মধ্যে ইট, পাথর, বালু, খোয়াসহ পিজ জ্বালানোর উপকরণ রাখা হয়েছে। স্কুলের বারান্দা ও মাঠের কোণায় শিক্ষার্থীসহ এলাকাবাসী তাদের খেলার সরঞ্জামাদি নিয়ে বসে আছেন।

শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, প্রাথমিক স্কুলের নিজস্ব মাঠ হলেও দুই স্কুলের শিক্ষার্থীরা একত্রে খেলাধুলা করে আসছে। কিন্তু হঠাৎ করে বিদ্যালয়ের মাঠে মালামাল রাখা ও পিচ জ্বালোনোর ধোঁয়ায় তারা খেলাধুলা করতে পারছে না। এ ব্যাপারে শিক্ষক ও পরিচালনা পর্ষদও কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছে না। 
এলাকাবাসীর অভিযোগ, পবিত্র রমজানের আগে একমাত্র খেলার মাঠে সড়ক নির্মাণের সামগ্রীগুলো রাখায় তাদের সন্তানেরা খেলাধুলা করতে পারছে না। স্কুলের প্রধান শিক্ষক ও পরিচালনা পর্ষদ এ ব্যাপারে কোনো পদক্ষেপ না নেওয়ায় তারা উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

এ ব্যাপারে ধোপাদী আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক ঠাকুর দাস জানান, মাঠটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সম্পত্তি। তবে স্কুল মাঠ দখল করে নির্মাণসামগ্রী রাখায় তিনি দুঃখ প্রকাশ করেন। 

ধোপাদী উত্তর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ফিরোজা বেগমের সাথে কথা হলে তিনি বলেন, ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান সব মালামাল রাখার পর তাকে জানানো হয়েছিল। পরবর্তীতে তিনি উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের এটিও বি এম রফিকুল ইসলামকে বিষয়টি জানিয়েছিলেন। 

উপজেলা এটিও বি এম রফিকুল ইসলাম বলেন, প্রধান শিক্ষিকার মাধ্যমে তিনি বিষয়টি জানতে পেরে কাজ বন্ধ করে দিয়েছিলেন। রোজার কারণে খোঁজ নেওয়া সম্ভব হয়নি। তবে এখনই ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে তিনি জানান। 

পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি ইকবাল হোসেন বলেন, তাকে না জানিয়ে এমনটি করা হয়েছে। এলাকার একটি প্রভাবশালী মহল এ কাজের সাথে জড়িত। স্কুল খোলার পরই কমিটির মিটিং ডেকে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা আব্দুল জব্বার সরদারের সাথে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি এ বিষয়ে কিছুই জানেন না বলে তদন্তপূর্বক একদিনের মধ্যে ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দেন।

নির্মাণসামগ্রী মাঠের এক কোণায় রাখার কারণে খেলাধুলার কোনো সমস্যা হচ্ছে না বলে আসলাম বিশ্বাস নামের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে জানানো হয়। স্কুল কর্তৃপক্ষের অনুমতি না নিয়ে মালামাল রাখার বিষয়টি এড়িয়ে গিয়ে বলা হয় দু-একদিনের মধ্যে নির্মাণসামগ্রী সরিয়ে ফেলা হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা