kalerkantho

বুধবার। ১৯ জুন ২০১৯। ৫ আষাঢ় ১৪২৬। ১৫ শাওয়াল ১৪৪০

পাওনাদারের কান ছিঁড়ল দেনাদার

গফরগাঁও (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি   

২৬ মে, ২০১৯ ১৫:৫১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পাওনাদারের কান ছিঁড়ল দেনাদার

ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে শিখা খাতুন (৪৫) নামে এক পাওনাদারের কান ছিড়ে নিয়েছে প্রতিবেশী দেনাদার। পরে স্থানীয় লোকজন শিখা খাতুনকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। ঘটনাটি ঘটে গতকাল শনিবার বিকালে উপজেলার গফরগাঁও গ্রামে। এ ঘটনায় শিখা খাতুন আজ রবিবার দেনাদারের বিরুদ্ধে গফরগাঁও থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন। 

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার গফরগাঁও গ্রামের মৃত ইদ্রিস আলীর ছেলে আব্দুল বাতেন প্রতিবেশী শিখা খাতুনের মেয়ে আকলিমার কাছ থেকে প্রায় ৫ মাস পূর্বে ১৫ দিনের কথা বলে পাঁচ হাজার টাকা ঋণ নেয়। কিন্তু আব্দুল বাতেন যথাসময়ে টাকা ফেরত না দিয়ে দেই দিচ্ছি করে ঘুরাতে থাকেন। এ অবস্থায় গতকাল শনিবার বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে শিখা খাতুন তার মেয়ে আকলিমাকে সঙ্গে নিয়ে বাড়ির পাশে বিদ্যালয় মাঠে দেনাদার আব্দুল বাতেনকে পেয়ে পাওনা টাকা দাবি করলে দুই পক্ষের মধ্যে বাকবিতণ্ডা শুরু হয়। একপর্যায়ে দেনাদার আব্দুল বাতেন ও তার স্বজন আব্দুর রশিদ তাদের মারধর শুরু করেন। এ সময় শিখা খাতুনের কানের দুল ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করলে কানের লতি ছিঁড়ে রক্তাক্ত জখম হয়। পরে প্রতিবেশীরা এসে শিখা খাতুনকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

গফরগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আবদুল আহাদ খান বলেন, লিখিত অভিযোগ পেয়ে আসামি ধরতে অফিসার পাঠিয়েছি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা