kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২৭ জুন ২০১৯। ১৩ আষাঢ় ১৪২৬। ২৩ শাওয়াল ১৪৪০

চলন্ত ট্রাকের ধাক্কায় প্রাণ গেল এনজিও কর্মকর্তার

সাপাহার (নওগাঁ) প্রতিনিধি   

২৬ মে, ২০১৯ ০১:৫৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চলন্ত ট্রাকের ধাক্কায় প্রাণ গেল এনজিও কর্মকর্তার

ছবি: কালের কণ্ঠ

নওগাঁ সাপাহারে চলন্ত ট্রাকের সঙ্গে ধাক্কা লেগে মোটর সাইকেল চালক বেসরকারি সংস্থা কারিতাসের জুনিয়র প্রোগ্রাম অফিসার নাজমুস সাহাদাৎ (৪৫) নিহত হয়েছে। অপর আরোহী আশরাফুল ইসলাম (৪২) নামের মাঠ কর্মকর্তা গুরুতর আহত হয়েছে। 

গত শনিবার দুপুর আড়াইটার দিকে সাপাহার টু পোরশা পাকা সড়কের খোট্রারাপাড়া ভেড়াকুড়ি ব্রিজের কাছে এই মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনা ঘটে। 

ওই সড়ক দুর্ঘটনায় ভাগ্যেক্রমে প্রাণে বেঁচে যাওয়া এনজিও কর্মকর্তা আশরাফুল ইসলাম জানান, রাজশাহী অঞ্চলের বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা কারিতাসের অঞ্চলিক জুনিয়র প্রোগ্রাম অফিসার নাজমুস সাহাদাৎ ও তিনি মোটরসাইকেল যোগে সাপাহার অফিস পরির্দশনে আসার পথে খোট্রারাপাড়া ভেড়াকুড়ী ব্রীজের নিকট পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে মালবাহী ৩/৪টি ট্রাক দ্রুতবেগে তাদের অতিক্রম করতে থাকে। 

এ সময় মোটরসাইকেল চালক প্রোগ্রাম অফিসার নাজমুস সাহাদাৎ তার মোটরসাইকেলের নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলেন। তাৎক্ষণিক চলন্ত মোটরসাইকেলটি ট্রাকের চাকার সঙ্গে প্রচণ্ড জোরে ধাক্কা লাগে ও রাস্তা থেকে ছিটকে পড়ে যায়। স্থানীয় লোকজন ঘটনাস্থলে ছুটে এসে রক্তাক্ত ও গুরুতর আহত অবস্থায় তাদের দুইজনকে উদ্ধার করে তাৎক্ষণিক সাপাহার উপজেলা হাসপাতালে নিয়ে আসে। 

এ সময় কর্তব্যরত চিকিৎসকরা এনজিও কর্মকর্তা নাজমুস সাহাদাৎকে মৃত ঘোষণা করেন। নিহত এনজিও কর্মকর্তা নাজমুস সাহাদাৎ রাজশাহী জেলার বালিয়া এলাকার মোজাম্মেল হকের ছেলে ও আহত অপর মাঠ কর্মকর্তা আশরাফুল ইসলাম রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার ভবানীগঞ্জ পৌর এলাকার আফছার আলীর ছেলে বলে হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে।

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় কোনো মামলা হয়নি। নিহত এনজিও কর্মকর্তার লাশ সাপাহার হাসপাতালের জরুরি বিভাগে ছিল। সাপাহার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শামসুল আলম শাহ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা