kalerkantho

বুধবার । ২৬ জুন ২০১৯। ১২ আষাঢ় ১৪২৬। ২৩ শাওয়াল ১৪৪০

সাহ্‌রি খাওয়া হলো না নুরুলের

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, ময়মনসিংহ   

২৫ মে, ২০১৯ ০২:৫৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সাহ্‌রি খাওয়া হলো না নুরুলের

খাবার হোটেলের ক্যাশ পরিচালনার দায়িত্ব শেষে সাহ্‌রি খেতে মোটরসাইকেলযোগে বাড়ি যাচ্ছিলেন নুরুল ইসলাম (৪৫)। পথে দাঁড়িয়ে থাকা একটি পিকআপে ধাক্কা লেগে জ্ঞান হারিয়ে মহাসড়কে পড়ে যান। এ সময় দ্রুতগামীর বেশ কয়েকটি যানবাহন তাঁকে পিষে গেলে দেহ ছিন্নভিন্ন হয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই তাঁর মৃত্যু হয়। সেই সঙ্গে তাঁর সঙ্গে থাকা আরোহী গুরুতর আহত হন।

আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাঁকে উদ্ধার করে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার গভীর রাতে এ ধরনের মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ মহাসড়কের নান্দাইলের পালাহার এলাকায়। 

স্থানীয় সূত্র জানায়, নিহত নুরুল ইসলাম হচ্ছেন- নান্দাইল উপজেলার চন্ডীপাশা ইউনিয়নের পালাহার গ্রামের আব্দুল জব্বারের ছেলে। কৃষি কাজের পাশপাশি তিনি নান্দাইল চৌরাস্তা বাসস্ট্যান্ডের একটি খাবার হোটেলের ক্যাশ পরিচালনা করতেন। প্রতিদিনের মতো সাহ্‌রি খেতে তিনি গত বৃহস্পতিবার মধ্যরাতের পর মোটরসাইকেলে করে বাড়িতে ফিরছিলেন। মহাসড়ক ধরে এগিয়ে যাওয়ার সময় পূর্ব থেকে অবস্থান করা একটি অচল পিকআপের সঙ্গে তাঁর মোটরসাইকেলটি ধাক্কা খায়। এতে দুজনেই সড়কে ছিটকে পড়েন।

নান্দাইল চৌরাস্থা হাইওয়ে থানার ওসি জানান, একটি মোটরসাইকেলে দুইজন ছিলেন। পিকআপে মোটরসাইকেল ধাক্কার পর দুইজনই ছিটকে পড়েন। তিনি বলেন, চালক নুরুল ইসলাম মহাসড়কের মাঝখানে অচেতন অবস্থায় এবং সঙ্গের জন মো. জয়নাল মিয়া (৩০) সড়কের পাশে পড়ে ছিলেন। এ সময় সড়কে চলাচলরত বিভিন্ন যানবাহন নুরুল ইসলামের মরদেহের ওপর দিয়ে চলে যায়।

হাইওয়ের ওসি মামুনুর রহমান জানান, নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে কোনো অভিযোগ না থাকায় ময়নাতদন্ত ছাড়াই লাশটি পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা