kalerkantho

মঙ্গলবার। ১৮ জুন ২০১৯। ৪ আষাঢ় ১৪২৬। ১৪ শাওয়াল ১৪৪০

কুলাউড়ায় নিজ গলা কেটে গৃহবধূর আত্মহত্যা!

কুলাউড়া (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি   

২৫ মে, ২০১৯ ০২:০১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কুলাউড়ায় নিজ গলা কেটে গৃহবধূর আত্মহত্যা!

প্রতীকী ছবি

মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় নিজ পিত্রালয়ে নিজের গলা কেটে রাবিয়া বেগম (৪০) নামে এক গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। পুলিশ ওই গৃহবধূর গলা কাটা লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছে। গতকাল শুক্রবার দুপুর ১২টার দিকে উপজেলার কর্মধা ইউনিয়নের ফটিগুলি এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটে।

গৃহবধূ রাবিয়া কর্মধা ইউনিয়নের ফটিগুলী গ্রামের আব্দুল লতিফের মেয়ে এবং একই ইউনিয়নের দীঘলকান্দি প্রামের তাহির আলীর স্ত্রী।

স্থানীয় সূত্র থেকে জানা যায়, শুক্রবার সকালে স্বামীর বাড়ি দীঘলকান্দি থেকে ফটিগুলিতে নিজের পিত্রালয়ে আসেন গৃহবধূ রাবিয়া বেগম। সবার অজান্তে দুপুর ১২টার দিকে ধারালো দা দিয়ে নিজ গলা কেটে ফেলেন। এ সময় তাঁর ছটফটের শব্দে পার্শ্ববর্তী ঘরের লোকজন এগিয়ে আসেন। কিন্তু কিছুক্ষণের মধ্যে ঘটনাস্থলেই মারা যান রাবিয়া বেগম। 
স্থানীয়রা কুলাউড়া থানা পুলিশকে খবর দেন। খবর পেয়ে কুলাউড়া থানার এসআই হারুন আল রশীদ ঘটনাস্থলে যান এবং লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন।

স্থানীয়দের ভাষ্যমতে, কয়েক বছর আগে তাহির আলীর সঙ্গে বিয়ে হয় রাবিয়া বেগমের। তাদের ঘরে ২ মেয়ে ও ১ ছেলে রয়েছে। অভাব অনটনসহ পারিবারিক বিভিন্ন সমস্যার কারণে স্বামীর সঙ্গে মাঝে মধ্যে রাবিয়া বেগমের মনোমালিন্য হতো। ঘটনার দিন হঠাৎ স্বামীর বাড়ি থেকে বাবার বাড়িতে এসে নিজ গলা দা দিয়ে কেটে ফেলার বিষয়টি রহস্যজনক বলে মনে করছেন তারা।

কুলাউড়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো. ইয়ারদৌস হাসান জানান, গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। ঘটনা তদন্তক্রমে এবং ময়নাতদন্ত রিপোর্ট সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা