kalerkantho

সোমবার। ১৭ জুন ২০১৯। ৩ আষাঢ় ১৪২৬। ১৩ শাওয়াল ১৪৪০

দুর্নীতির বিরুদ্ধে বালিশ হাতে নোবিপ্রবি'র তিন শিক্ষার্থীর প্রতিবাদ

নোবিপ্রবি প্রতিনিধি   

২২ মে, ২০১৯ ১৫:৫১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দুর্নীতির বিরুদ্ধে বালিশ হাতে নোবিপ্রবি'র তিন শিক্ষার্থীর প্রতিবাদ

রূপপুর পারমাণবিক প্রকল্পে দুর্নীতির প্রতিবাদে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (নোবিপ্রবি) বালিশ হাতে মাথানত হয়ে প্রতীকী মানববন্ধন করেছে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের তিন শিক্ষার্থী।

আজ বুধবার কালের কণ্ঠের নোবিপ্রবি প্রতিনিধি ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্যুরিজম অ্যান্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট বিভাগের শিক্ষার্থী নাসেরের নেতৃত্বে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের সামনে উক্ত প্রতীকী মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে কালের কণ্ঠের বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি ও ট্যুরিজম অ্যান্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট বিভাগের শিক্ষার্থী নাসের বলেন, উন্নয়নের অন্তরালে মহালুট করছে বঙ্গবন্ধুর আদর্শে বিশ্বাসী পরিচয় দাতা সরকারি বিভিন্ন প্রকল্পের কিছু অসাধু, দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তা-কর্মচারী। আমি নতুন প্রজন্মের একজন সংবাদ কর্মী, মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও বঙ্গবন্ধুর আদর্শে বিশ্বাসী বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন সচেতন শিক্ষার্থী হিসেবে যখন দেখি মেগা প্রজেক্টে মহালুটপাটের উৎসব চলছে, তখন এদেশের সন্তান হিসেবে আমি হতাশ হই। লজ্জায় মাথানত হওয়া ছাড়া আর কোনো উপায় থাকে না আমার। আজ পুরোদেশে চলছে হরিলুটের উৎসব। মানুষ কথা বলতে পারছে না। এ সুযোগ নিয়ে মহালুটপাটে মেতে উঠেছে সরকারের অসাধু কর্মকর্তা-কর্মচারী।

মানববন্ধনে ঢাকা ট্রিবিউনের বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি ও কৃষি বিভাগের শিক্ষার্থী রিপন চন্দ্র শীল বলেন, মুক্তিযুদ্ধের মূল লক্ষ্য ছিল মানুষের অধিকার থাকবে। দেশে কোনো অনিয়ম দুর্নীতি  থাকবে না। সুন্দর একটি বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠিত হবে। কিন্তু আজ সব কিছুই ব্যর্থ স্বপ্ন। দেশে চলছে মহালুটপাটের উৎসব। আজ যখন রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রে বুয়ার বেতন, গাড়িচালকের বেতন, প্রকল্প পরিচালকের বেতন, সর্বশেষ বালিশের দাম ও তোলার দাম আকাশচুম্বী, তখন জাতি হিসেবে আমরা অনেকেটাই লজ্জিত হই। এজন্যই আজ মাথা নুয়ে আজকের মানববন্ধন করছি।

মানববন্ধনে উপস্থিত কৃষি বিভাগের আরেক শিক্ষার্থী সৈকত বলেন, রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রে যে হরিলুট হয়েছে তা ইতিহাসে সেরা। দুর্নীতির ভয়াল কালো থাবা আজ বাংলাদেশকে ঘিরে ফেলেছে। দেশে দুর্নীতির সঙ্গে বেড়েই চলেছে বেকারের সংখ্যা, কৃষকের হাহাকার। দেশের এমন দুরবস্থার পরিবর্তন চাই।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা