kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৫ জুন ২০১৯। ১১ আষাঢ় ১৪২৬। ২২ শাওয়াল ১৪৪০

নান্দাইলে খালে মিলল দুই নবজাতকের লাশ

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, ময়মনসিংহ   

২০ মে, ২০১৯ ২২:৩৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নান্দাইলে খালে মিলল দুই নবজাতকের লাশ

কি অপরাধ ছিল ফুটফুটে দুই নবজাতকের। পৃথিবীর স্বাদ না পাওয়ার আগেই তাদের চলে যেতে হলো না ফেরার দেশে। একজন মা তার সন্তানকে ১০ মাস ১০ দিন গর্ভে ধারণ করেন এবং সেই সন্তান ভূমিষ্ট হয়। এরপর সন্তানকে পরম মমতায় লালন পালন করেন। কিন্তু কি অপরাধে দুই নবজাতকে খালের পানিতে ফেলে দেওয়া হলো। কেন ঘটল এই নির্মমতা। লাশ দেখতে আসা সকলের মনে একই প্রশ্ন।

আজ সোমবার দুপুরের পর ময়মনসিংহের নান্দাইলের রাজগাতী ইউনিয়নের উলুহাটি এলাকার হুলিয়াঝুড়ি খালের পানিতে নবজাতকদের লাশ ভাসতে দেখেন এলাকাবাসী। খবর পেয়ে নান্দাইল থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠায়। 

নান্দাইল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মোহাম্মদ রুহুল কদ্দুছ খান বলেন, এলাকা থেকে খবর আসে ওই খালের পাড়ে নির্জন জায়গায় নবজাতক দুটির মরদেহ পড়ে রয়েছে। তিনি ঘটনাস্থলে গিয়ে অর্ধ গলিত লাশ উদ্ধার করেন। তিনি ধারণা করছেন গত দুদিন ধরে মরদেহ দুটি খালের পাড়ে পড়েছিল। মৃত্যুর কারণ নিশ্চিত হতে ময়নাতদন্ত করার জন্য মরদেহ দুটি কিশোরগঞ্জের ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট আধুনিক সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। দেহ দুটি ছেলে না মেয়ে শিশুর তা বুঝা যাচ্ছে না। আনুমানিক পাঁচ মাসের গর্ভের হতে পারে।

নারী ও মানবাধিকার কর্মীরা বলেছেন সামাজিক অবক্ষয়ের কারণেই বিয়ে বহির্ভূত অনেক ধরনের সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ছে নারী-পুরুষ। ফলে এই নবজাতকদের জন্ম যেমন বেড়ে গেছে তেমনি বেড়ে গেছে জীবন্ত নবজাতককে ফেলে দিয়ে নিষ্কৃতি পাওয়ার ঘটনা। এতে করে নবজাতকের জন্মদাতা বাবা-মা হয়তো নিষ্কৃতি পাচ্ছেন, কিন্তু ফেলে দেওয়া নবজাতকের কপালে কি ঘটছে তা কি কেউ ভেবে দেখেছে?

মন্তব্য