kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২৭ জুন ২০১৯। ১৩ আষাঢ় ১৪২৬। ২৩ শাওয়াল ১৪৪০

আক্কেলপুরে বিএনপির 'পকেট' কমিটি, ত্যাগী নেতার ক্ষোভ

আক্কেলপুর (জয়পুরহাট) প্রতিনিধি   

১৯ মে, ২০১৯ ১৪:৩৬ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



আক্কেলপুরে বিএনপির 'পকেট' কমিটি, ত্যাগী নেতার ক্ষোভ

সদ্য ঘোষিত জয়পুরহাট জেলা বিএনপির 'পকেট' কমিটি গঠনের অভিযোগ তুলে বাতিলের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন জয়পুরহাটের আক্কেলপুর পৌর বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য ও সাবেক পৌর বিএনপির যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম সরদার। আজ রবিবার বেলা ১১টায় উপজেলা পরিষদের সামনে তার নিজ ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে এই সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। 

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে রেজাউল করিম সরদার বলেন, আমি এই মনগড়া 'পকেট' কমিটি গঠনের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। আমি ২০০২ সাল থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত আক্কেলপুর পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডে নির্বাচিত কাউন্সিলর ছিলাম। এবং ২০১৫ সালের ৩০ ডিসেম্বর পৌর নির্বাচনে মেয়র পদে বিএনপির দলীয় মনোনয়ন পেয়ে ধানের শীষ প্রতিক নিয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছিলাম। ওই নির্বাচনে দলের সিদ্ধান্তের বাহিরে সাবেক পৌর বিএনপির সভাপতি আলমগীর চৌধুরী বাদশা মোবাইল মার্কা প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করায় আমি পরাজিত হই। তিনি নির্বাচন না করলে আমি নিশ্চিত জয়ী হতাম। 

রেজাউল করিম সরদার আরো বলেন, গত ২০১৫ সালে ২৩ ফেব্রুয়ারি বিএনপির কেন্দ্রের কর্মসূচি সমাপ্ত করে আমার নিজ ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে বসে থাকা অবস্থায় আওয়ামী লীগের কিছু নেতাকর্মীদের দ্বারা হামলার শিকার হই। ওই হামলার ঘটনায় আমি ঢাকা হলি ফ্যামিলি হাসপাতালের আইসিইউতে দীর্ঘ ১৫ দিন চিকিৎসাধীন ছিলাম। 

গত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের দ্বারা মিথ্যা মামলার আসামি হয়েছি। রাজনীতি করতে গিয়ে আমি আর্থিকভাবে মারত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছি। বর্তমানে আমি ও আমার পরিবার মানবেতর জীবনযাপন করছি। ভেবেছিলাম এত ত্যাগ স্বীকার করার কারণে দল আমাকে মূল্যায়ন করবেন। এবং জেলা বিএনপির কমিটিতে যোগ্যতা অনুযায়ী আমাকে কোনো একটি পদে রাখা হবে বলে দীর্ঘদিন থেকে আশায় ছিলাম। কিন্তু গত ১৫ মে সদ্য ঘোষিত জেলা বিএনপির নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়। সেখানে বিএনপি থেকে আওয়ামী লীগের যোগদানকৃত ৮-১০ নেতাকর্মীকে ওই কমিটিতে বিভিন্ন পদে রাখা হয়েছে। এবং যারা দুঃসময়ে বিএনপির মাঠপর্যায়ে কোনো ভূমিকাই রাখেননি তাদেরকে এই কমিটিতে রাখা হয়েছে। তিনি অবিলম্বে তথাকথিত কমিটি বাতিল করে তাকে নিয়ে নতুন কমিটি গঠন করার দাবি জানান। 

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক মজিবর রহমান মজু, পৌরসভার আট নম্বর ওয়ার্ডের সভাপতি ও কাউন্সিলর আব্দুল মবিন ভোনা, উপজেলা বিএনপির সদস্য হুমায়ন খালেদ, সাত নম্বর ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি রেজাউল করিম, ছাত্রনেতা সবুজ হোসেন, ডি এম বাবলু, আজাম্মেল হোসেন প্রমুখ।


খবরটি ইউনিকোড থেকে বাংলা বিজয় ফন্টে কনভার্ট করা যাবে কালের কণ্ঠ Bangla Converter দিয়ে

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা