kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২৭ জুন ২০১৯। ১৩ আষাঢ় ১৪২৬। ২৩ শাওয়াল ১৪৪০

কেন্দ্র ফি জমা না দেওয়ায় পরীক্ষা স্থগিত, প্রতিবাদে কলেজে হামলা

জামালপুর প্রতিনিধি   

১৮ মে, ২০১৯ ১৫:৩০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



কেন্দ্র ফি জমা না দেওয়ায় পরীক্ষা স্থগিত, প্রতিবাদে কলেজে হামলা

কেন্দ্র ফি জমা না দেওয়ায় জামালপুর সদরের তুলসীপুর ডিগ্রি কলেজের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের কৃষিশিক্ষা বিষয়ের ব্যবহারিক পরীক্ষা স্থগিত করে দিয়েছে দিগপাইত শামছুল হক ডিগ্রি কলেজ কেন্দ্র কর্তৃপক্ষ। এর প্রতিবাদে পরীক্ষাবঞ্চিতরা তুলসীপুর কলেজের অধ্যক্ষ্যের কক্ষসহ বেশ কয়েকটি কক্ষের দরজা-জানালা ভাঙচুর করেছেন। আজ শনিবার সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

পরীক্ষার্থীদের অভিযোগ ও কেন্দ্র সূত্রে জানা গেছে, জামালপুর সদরের দিগপাইত শামছুল হক ডিগ্রি কলেজ কেন্দ্রে তুলসীপুর ডিগ্রি কলেজের ৪৩৬ জন পরীক্ষার্থী এবারের এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ নেন। গত বৃহস্পতিবার থেকে একই কেন্দ্রে শুরু হয়েছে বিজ্ঞান ও কৃষি শিক্ষা বিষয়ের ব্যবহারিক পরীক্ষা। এই কেন্দ্রের অন্যান্য কলেজ কর্তৃপক্ষ সময় মতো কেন্দ্র ফি পরিশোধ করলেও তুলসীপুর ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ তার কলেজের পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে আদায় করা এক লাখ ৮৫ হাজার ৭২৪ টাকার মধ্যে এক লাখ টাকা পরিশোধ করেছেন। বাকি টাকা পরিশোধ না করায় কেন্দ্র সচিব আজ শনিবার অনুষ্ঠিত কৃষি শিক্ষা বিষয়ের ব্যবহারিক পরীক্ষা সাময়িক স্থগিত ঘোষণা করেন।

ফলে পরীক্ষাবঞ্চিতরা কেন্দ্র ত্যাগ করে বেলা সাড়ে ১০ টার দিকে তাদের তুলসীপুর ডিগ্রি কলেজে গিয়ে বিক্ষোভ মিছিল ও স্থানীয় সড়ক অবরোধ করে অধ্যক্ষের স্বেচ্ছাচারিতার বিচার দাবি করেন। একই সাথে তারা ব্যবহারিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ নিশ্চিত করারও দাবি জানান। এক পর্যায়ে বিক্ষুব্ধ পরীক্ষার্থীরা অধ্যক্ষের কক্ষসহ বেশ কয়েকটি কক্ষের দরজা-জানালা ভাঙচুর করে। এ সময় কলেজটির অধ্যক্ষ মো. জাহাঙ্গীর আলম লিচু কলেজে ছিলেন না। পরে তিনি কলেজে উপস্থিত হয়ে কেন্দ্র ফি পরিশোধ করে ব্যবহারিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগ করে দেওয়ার আশ্বাসের প্রেক্ষিতে বিক্ষুব্ধ পরীক্ষার্থীরা তাদের আন্দোলন স্থগিত ঘোষণা করলে পরিস্থিতি শান্ত হয়।

এ প্রসঙ্গে অধ্যক্ষ মো. জাহাঙ্গীর আলম লিচুর প্রতিক্রিয়া জানতে তার কাছে বেশ কয়েকবার ফোন করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

কেন্দ্র সচিব ও দিগপাইত শামছুল হক ডিগ্রি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মো. মুক্তার আলী কালের কণ্ঠকে বলেন, তুলসীপুর ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ জাহাঙ্গীর আলম লিচুর কাছে পাওনা বকেয়া কেন্দ্র ফি ৮৫ হাজার ৭২৪ টাকা জমা না দেওয়া পর্যন্ত ওই কলেজের পরীক্ষার্থীদের ব্যবহারিক পরীক্ষা সাময়িক স্থগিত থাকবে। টাকা হাতে না পেয়ে পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগ দিলে পরবর্তীতে আর টাকাই পাওয়া যাবে না।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা