kalerkantho

মঙ্গলবার । ২১ মে ২০১৯। ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৫ রমজান ১৪৪০

চাঁদা দাবির অডিও নিয়ে তোলপাড়, গ্রেপ্তার ১

নাজিরপুর (পিরোজপুর) প্রতিনিধি   

১৬ মে, ২০১৯ ২০:৩২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চাঁদা দাবির অডিও নিয়ে তোলপাড়, গ্রেপ্তার ১

পিরোজপুরের নাজিরপুরে এক ব্যক্তির চাঁদা দাবির অডিও ভাইরাল হয়েছে। আর এই ঘটনায় চাঁদা দাবির অভিযোগে নিত্যানন্দ হালদার ওরফে নিতাই মাস্টার নামে ওই ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিকেলে উপজেলার শ্রীরামকাঠী বন্দর থেকে নাজিরপুর থানা পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। তার বিরুদ্ধে চাঁদাবাজিসহ প্রতারণার নানা অভিযোগ রয়েছে। নিতাই মাস্টার উপজেলার শ্রীরামকাঠী গ্রামের মৃত সুরেন্দ্র নাথ হালদারের ছেলে।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার বানিয়াকাঠী গ্রামে মৃত যজ্ঞেশ্বর বড়ালের ছেলে পিরোজপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের অবসর প্রাপ্ত অফিস সহকারী কাম-কম্পিউটার অপারেটর নির্মল চন্দ্র বড়ালসহ তার পূর্ব পরিচিত বুলবুল রানী সিকদার, সুরেশ চন্দ্র রায় ও গীতা রানী মিস্ত্রী মিলে উপজেলার ৬৩নং ভীমকাঠী মৌজার এস.এ খং নং- ১৫১, দাগ নং- ৮১১ এর ১৬ শতক সম্পত্তি রেকর্ডীয় মালিক প্রফুল্ল কুমার রায়ের নিকট সাব কবলা মুলে খরিদ করেন। পরে তারা ওই সম্পত্তিতে আলাদা আলাদা ভাবে পাকা ভবন নির্মাণ কাজ শুরু করেন। নির্মাণ কাজ চলমান অবস্থায় নিতাই মাষ্টার মুঠোফোনে ৭ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন। এই দাবিতে তাদেরকে নানা ভাবে ভয়ভীতি ও হুমকি দিতে থাকেন। এ সময় তারা মুঠোফোনে চাঁদা দাবির বিষয়টি অডিও রেকর্ড করে রাখেন। পরে এ ঘটনায় ভোক্তভুগী নির্মল চন্দ্র বড়াল বাদি হয়ে দু’জনের নাম উল্লেখসহ ৮ থেকে ১০ জনকে আসামি করে বৃহস্পতিবার দুপুরে নাজিরপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে নিত্যানন্দ হালদার ওরফে নিতাই মাস্টার চাঁদা দাবির ঘটনা অস্বীকার করে বলেন, ওই সম্পত্তির মধ্যে হিমাংশু কুমার বৈরাগীর সম্পত্তি রয়েছে। সে বিষয়টি ফয়সালার জন্য তারা আমার কাছে আসলে তাদের সাথে হিমাংশুর সম্পত্তি নিয়ে কথা বলি। 

অডিওর ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি প্রসঙ্গ এড়িয়ে যান।

নাজিরপুর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. জাকারিয়া বলেন, এ ঘটনায় নির্মল চন্দ্র বড়ালের অভিযোগের ভিক্তিতে থানায় একটি চাঁদাবাজির মামলা রুজু হয়েছে। মামলার প্রধান আসামি নিতাই মাস্টারকে গ্রেপ্তার করে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

মন্তব্য