kalerkantho

মঙ্গলবার । ২১ জানুয়ারি ২০২০। ৭ মাঘ ১৪২৬। ২৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

বাঁধ সংস্কার হয়নি

কয়রার বাসিন্দাদের নদীভাঙনের আতঙ্ক

খুলনা অফিস   

১৬ মে, ২০১৯ ০২:৪১ | পড়া যাবে ১ মিনিটে



কয়রার বাসিন্দাদের নদীভাঙনের আতঙ্ক

খুলনার উপকূলীয় উপজেলা কয়রার বাসিন্দারা ঘূর্ণিঝড় ফণীর আঘাতে ক্ষতিগ্রস্ত ওয়াপদার বেড়িবাঁধ আরো ভাঙনের আতঙ্কে রয়েছে। আগামী পূর্ণিমার সময়ে নদীতে পানির চাপ বাড়বে। ফলে দুর্বল বাঁধগুলো ভেঙে বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। ফণীর আঘাতের পর ১০-১১ দিন পেরিয়ে গেলেও পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) ক্ষতিগ্রস্ত বাঁধের কাজ শুরু না করায় তারা আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছে। 
 
জানা যায়, কয়রা উপজেলার ১২০ কিলোমিটার বেড়িবাঁধ। এর মধ্যে ৩৫ কিলোমিটার ঝুঁকিপূর্ণ। বিশেষ করে উপজেলার সদর ইউনিয়নের মদিনাবাদ লঞ্চঘাট ও হরিণখোলা, উত্তর বেদকাশির শাকবাড়িয়া ও গাজীপাড়া, দক্ষিণ বেদকাশির আংটিহারা ও মহারাজপুরের দশহালিয়া ও শাকবাড়িয়া গ্রামের কপোতাক্ষ নদের বেড়িবাঁধ ঝুঁকিতে রয়েছে। ঘূর্ণিঝড় ফণীর আঘাতে উপজেলার প্রায় আট কিলোমিটার ওয়াপদার বেড়িবাঁধ ক্ষতিগ্রস্ত হয়। 
 
স্থানীয় বাসিন্দারা জানায়, বাঁধ সংস্কারের জন্য ঠিকাদার নিয়োগ হলেও এখনো কাজ শুরু হয়নি।
 
পাউবোর স্থানীয় কর্মকর্তা মশিউর রহমান জানান, দুই-এক দিনের মধ্যে ঠিকাদার কাজ শুরু করবেন। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা