kalerkantho

রবিবার । ২৬ মে ২০১৯। ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ২০ রমজান ১৪৪০

পাংশায় ২৫০ মন ভেজাল গুড় জব্দসহ ব্যবসায়ীকে জরিমানা

চক পাউডার, ফিটকিরি, চিনি, বার্নিশ কালার, ময়দা ও রং দিয়ে তৈরি হচ্ছে আখের গুড়

রাজবাড়ী প্রতিনিধি   

৯ মে, ২০১৯ ১৯:২২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চক পাউডার, ফিটকিরি, চিনি, বার্নিশ কালার, ময়দা ও রং দিয়ে তৈরি হচ্ছে আখের গুড়

ছবি : কালের কণ্ঠ

রাজবাড়ীতে চক পাউডার, ফিটকিরি, চিনি, বার্নিশ কালার, ময়দা, রং দিয়ে তৈরি করা হচ্ছে আখের গুড়। এমনি উপকরণে তৈরী ২৫০ মন ভেজাল গুড় জেলার পাংশা উপজেলার মৈশালা এলাকা থেকে জব্দ করার পাশাপাশি তাপস পাল নামে এক ব্যবসায়ীকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে ভোক্তা আইনের ৪২ ধারায় ওই ভেজাল গুড় ব্যবসায়ীকে জরিমানা এবং গুড় তৈরির মালামাল ধ্বংস করেছে জেলা জাতীয় ভোক্তা অধিকার। এ সময় জব্দকৃত ৫ বস্তা চিনি ও ৪ কুলা গুড় স্থানীয় একটি এতিমখানায় বিতরণ করা হয়েছে।

জানা গেছে, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জেলা জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মোঃ শরিফুল ইসলাম এর নেতৃত্বে পাংশা থানার ওসি আহসান উল্লাহ, সিভিল সার্জন কার্যালয়ের স্যানিটারি ইন্সেপেক্টর ও নিরাপদ খাদ্য পরিদর্শক সূর্য্যে কুমার প্রামাণিকসহ প্রশাসনের সহায়তায় পাংশা উপজেলার মৈশালা তাপস পালের ভেজাল গুড়ের কারখানায় অভিযান চালিয়ে প্রায় ২৫০ মন ভেজাল গুড়, গুড় তৈরির চক পাউডার, ফিটকিরি, চিনি, বার্নিশ কালার, ময়দা, গুলানো রং জব্দ করে জেলা জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। পরে জব্দকৃত ভেজাল গুড় ও গুড় তৈরির মালামাল সাধারণ জনগণের সামনে ধ্বংস এবং গুড় ব্যবসায়ী তাপস পালকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেন। এ সময় ভালো ৫ বস্তা চিনি ও ৪ কুলা গুড় স্থানীয় একটি এতিমখানায় বিতরণ করা হয়েছে।

জেলা জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মোঃ শরিফুল ইসলাম-এর সত্যতা নিশ্চিত করেন।

মন্তব্য