kalerkantho

সোমবার । ২০ মে ২০১৯। ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৪ রমজান ১৪৪০

‌সাসটেইন্যাবল অ্যাকুয়াকালচার অ্যান্ড ফিশারিজ

দ্বিতীয় আন্তর্জাতিক সিম্পোজিয়ামের প্রথম দিন সম্পন্ন

নোবিপ্রবি প্রতিনিধি   

২৫ এপ্রিল, ২০১৯ ০২:০৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দ্বিতীয় আন্তর্জাতিক সিম্পোজিয়ামের প্রথম দিন সম্পন্ন

ছবি: কালের কণ্ঠ

নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (নোবিপ্রবি) ফিশারিজ অ্যান্ড মেরিন সায়েন্স বিভাগ কর্তৃক আয়োজিত দুই দিনব্যাপী ‘সাসটেইন্যাবল অ্যাকুয়াকালচার অ্যান্ড ফিশারিজ' শীর্ষক ২য় আন্তর্জাতিক সিম্পোজিয়ামের প্রথম দিন সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে।

বুধবার বিশ্ববিদ্যালয়ের বীর মুক্তিযোদ্ধা হাজী মোহাম্মদ ইদ্রিস অডিটোরিয়ামে সিম্পোজিয়ামটির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. এম. অহিদুজ্জামান।

ফিশারিজ অ্যান্ড মেরিন সায়েন্স বিভাগের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. মো. জাহাঙ্গীর সরকারের সভাপতিত্বে সিম্পোজিয়ামে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নোয়াখালী-৪ আসনের সাংসদ একরামুল করিম চৌধুরী এমপি, বিশেষ অতিথি ছিলেন জাতীয় মৎস্য বিভাগের ডিরেক্টর জেনারেল আবু সায়েদ মো. রাশেদুল হক, বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউট (বিএফআরআই) এর ডিরেক্টর জেনারেল ড. ইয়াহিয়া মাহমুদ, বাংলাদেশ এগ্রিকালচার রিসার্চ কাউন্সিল (বিএআরসি)-এর এক্সিকিউটিভ চেয়ারম্যান ড. কবির একরামুল হক, বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের মৎস্য অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মো. গিয়াস উদ্দিন আহমেদ, ওয়ার্ল্ড ফিশ এর সাবেক কান্ট্রি ডিরেক্টর ড. ক্রেইগ এ মেইজনার। কি নোট স্পিকার হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, জাপানের হিরোশিমা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফলিত জীব বিজ্ঞান অনুষদের অধ্যাপক ড. তামিজি ইয়ামামোতো এবং বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের মৎস্য অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মো. আব্দুল ওহাব।

সিম্পোজিয়ামে বাংলাদেশে মৎস্য শিক্ষা ও গবেষণায় অনন্য অবদানের জন্য অধ্যাপক ড. মো. আবদুল ওহাবকে আজীবন সম্মাননা প্রদান করা হয়। বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৪ জন আমন্ত্রিত বক্তা বিষয়ভিত্তিক প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন। ২২ জন গবেষক তাদের গবেষণা প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন এবং ৪৫ জন গবেষক তাদের পোস্টার প্রেজেন্টেশন করে।

সিম্পোজিয়ামে আলোচকগণ এসডিজি লক্ষ্য অর্জনের উদ্দেশে এবং মৎস্য সম্পদের সুষ্ঠু ব্যবহারের ওপর জোর দেন।

মন্তব্য