kalerkantho

শুক্রবার । ২৪ মে ২০১৯। ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৮ রমজান ১৪৪০

প্রভাবশালীদের দখলে ফুটপাত, দুর্ভোগ

সোনারগাঁ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি    

২৪ এপ্রিল, ২০১৯ ১৩:০৩ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



প্রভাবশালীদের দখলে ফুটপাত, দুর্ভোগ

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয় মোগরাপাড়া চৌরাস্তায় ঢাকা চট্টগ্রাম মহাসড়কের উভয় পাশের ফুটপাত দখল করে রেখেছে স্থানীয় প্রভাবশালীরা। ফুটপাত দখল হয়ে যাওয়ায় প্রধান সড়ক দিয়ে হাঁটতে গিয়ে প্রতিনিয়ত দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে পথচারীরা। অবৈধভাবে ফুটপাত দখল করে হাজারো মানুষের দুর্ভোগ সৃষ্টি করে প্রতিদিন লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে এলাকার প্রভাবশালী মহল। যানজট নিরসনে পুলিশ ও উপজেলা প্রশাসনের তেমন কোনো ভুমিকা নেই বলে অভিযোগ করেছে পথচারী ও সাধারণ জনগণ।

সরেজমিন দেখা যায়, মোগরাপাড়া চৌরাস্তা থেকে সোনারগাঁ থানা, স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, বৈদ্যের বাজার ও বারদীর আঞ্চলিক সড়কের প্রবেশমুখে আয়ুব প্লাজার সামনে জনসাধারণের হাঁটার রাস্তার ওপর দোকান তুলে ভাড়া দিচ্ছেন। ফুটপাত না থাকায় সাধারণ জনগণকে রাস্তার ওপর দিয়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চলতে হচ্ছে। প্রতিনিয়ত দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে ক্রেতা ও পথচারী এবং আয়ুব প্লাজার পূর্বদিকের বেকারির সামনে দিয়ে মাত্র এক ফুট রাস্তা দিয়ে চলতে গিয়ে যৌন হয়রানির শিকার হচ্ছে নারী পথচারীরা। এ ছাড়াও ঈশাখাঁ প্লাজা, স্বপ্নদ্বীপ, জালাল টাওয়ারসহ অন্যান্য মার্কেটের সামনেও ফুটপাত দখল করে অবৈধভাবে ভাড়া দিচ্ছেন মার্কেট মালিকেরা। রাস্তার পাশে চালের আড়ত্, রড-সিমেন্টের দোকান থাকায় তারা আইন না মেনেই যখন-তখন ট্রাক থেকে মালামাল লোড-আনলোড করছে। মোল্লা প্লাজার সামনে পরিকল্পিতভাবে ম্যানহোলের ঢাকনা রাস্তা থেকে প্রায় একফুট উঁচু রাখায় সেখান দিয়ে কোনো গাড়ি চলাচল করতে পারে না বলেও চালকরা অভিযোগ করেন। তা ছাড়াও এ অপ্রসস্থ রাস্তা দিয়ে প্রতিদিনই আমান গ্রুপের ভারী যানবাহন চলাচল করায় যানজট আরো তীব্র হচ্ছে বলে এলাকাবাসী জানান।

গতকাল সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, সোনারগাঁ থানার এসআই আবুল কালাম আজাদ নিজ উদ্যোগে যানজট নিয়ন্ত্রণে কাজ করছেন। তিনি কালের কণ্ঠকে জানান, মোগরাপাড়া চৌরাস্তার জালাল টাওয়ারের সামনে রাস্তার মাঝখানে বিদ্যুৎ এর খুঁটি, স্বপ্নদ্বীপ ও হাজী মোস্তফা কামাল মার্কেটে ওঠানামা করার জন্য জনসাধারণের চলাচলের রাস্তা দখল করে সিড়ি তৈরি করছেন। ফুটপাতের অবৈধ দোকান ও রাস্তার ওপরের সিড়ি এবং বৈদ্যুতিক খুঁটি সরানো না গেলে ব্যস্ততম এ রাস্তাটি যানজটমুক্ত করা সম্ভব নয়। 

ঢাকা থেকে প্রায় ২৫ কিলোমিটার রাস্তা পার হয়ে মোগরাপাড়া চৌরাস্তায় আসতে ৪০ মিনিট সময় লাগলেও মোগরাপাড়া চৌরাস্তা হতে সোনারগাঁ পৌরসভার চিলারবাগ শহীদ মজনু পার্ক পর্যন্ত সড়কের যানজটের আধাকিলোমিটার রাস্তা পার হতে সময় লাগে ১-২ ঘণ্টা। এ রাস্তায় নিয়মিত উপজেলার ১০টি ইউনিয়ন, পৌরসভা ও সোনারগাঁ উপজেলার পাশ্ববর্তী কুমিল্লার মেঘনা, হোমনা ও আড়াইহাজার উপজেলার একাংশের মানুষ, স্থানীয় বিভিন্ন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থী, ঐতিহাসিক সোনারগাঁ পরিদর্শনে আসা দেশ-বিদেশের পর্যটক, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিতে আসা রোগী ও উপজেলার ২৪ দপ্তরে আসা মানুষকে ঘণ্টার পর ঘণ্টা দুর্ভোগে পড়তে হচ্ছে। রাস্তার পশ্চিম পাশে নবীগঞ্জ, হোসেনপুর ও নারায়ণগঞ্জ রোডে সোনারগাঁ সরকারি কলেজ ও সরকারি বিদ্যালয়ে যাতায়াতের রাস্তার ফুটপাত দখল এবং চলাচলের রাস্তা দখল করে নূরা বেপারী মাকের্টের সিড়ি তৈরি করায় শিক্ষার্থী ও পথচারীরা অসহনীয় দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন। 

নারায়ণগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি ১ সোনারগাঁ জোনাল অফিসের উপমহাব্যবস্থাপক (ডিজিএম) জোনাব আলী জানান, দু-এক দিনের মধ্যেই রাস্তা থেকে বিদ্যুতের খুঁটি সরিয়ে ফেলা হবে। কাঁচপুর হাইওয়ে থানার ওসি কায়ুম আলী সরদার বলেন, মহাসড়কের উভয় পাশের ফুটপাতের ওপর কোনো হকার অবৈধ স্থাপনা থাকতে দেওয়া হবে না। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অঞ্জন কুমার সরকার জানান, জনসাধারণের চলাচলের জন্য ফুটপাত দখলমুক্ত ও রাস্তা দখল করে অবৈধভাবে তৈরি সিড়ি ভেঙে ফেলা হবে।

মন্তব্য