kalerkantho

মঙ্গলবার । ২১ মে ২০১৯। ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৫ রমজান ১৪৪০

গাংনীতে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে সংঘর্ষে আহত সাত

মেহেরপুর প্রতিনিধি   

২০ এপ্রিল, ২০১৯ ২০:৫৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গাংনীতে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে সংঘর্ষে আহত সাত

মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার সাহারবাটি গ্রামে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে সংঘর্ষে উভয় পক্ষের ৭ জন আহত হয়েছে। শনিবার সকাল ৮ টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। 

আহতরা হলেন, আব্দুল জব্বার, তার স্ত্রী সরলা খাতুন, আব্দুল জব্বারের ছেলে সোহেল রানা, আব্দুল হামিদের স্ত্রী আছিয়া খাতুন, আব্দুল হামিদের ছেলে উজ্জ্বল আলী, লাল বাবু ওরফে লাল চাঁদ, লালবাবুর স্ত্রী সোনিয়া খাতুন, রফিকুলের ছেলে রাসেল আহমেদ। আহতদের গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হলে আব্দুল জব্বার ও উজ্জল এর অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় অন্যত্র স্থানান্তর করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সাহারবাটি গ্রামের কৃষক আব্দুল জব্বারের বাড়ীর সামনে পাঁচ শতক খাস জমি নিয়ে আব্দুল জব্বারের ভাই আব্দুর রশীদের সাথে প্রতিবেশী মফেজ উদ্দীনের ছেলেদের সাথে বিরোধ চলে আসছিল। এনিয়ে মফেজ উদ্দীনের ছেলে শুকুর আলী, রইছদ্দীন, সেন্টু, বাবলুর সাথে প্রায় একযুগ ধরে দেওয়ানী মামলা চলছে। ঘটনার সময় শুকুর আলীর নেতৃত্বে রইছদ্দীন, বাবলু, সেন্টু, মজিবর, তইজু, শরিফুল, বাবলু লোকজন নিয়ে গাংনী-কাথুলী সড়কের পশে ঐ পাঁচ শতক জমি দখল করতে গেলে জমির ভোগ দখলকারী আব্দুল জব্বার তার শরীকদের নিয়ে বাধা দেয়। এক পর্যায়ে প্রতিপক্ষ মফেজ উদ্দীনের ছেলেরা দেশীয় লাঠি, ফলা, বাটাম, রড, দা নিয়ে প্রতিপক্ষ আব্দুল জব্বারের পরিবারের উপর হামলা চালিয়ে তাদের রক্তাক্ত জখম করে। 

আহত উজ্জ্বল জানান, আমাদের বাড়ি সংলগ্ন রাস্তার পাশে পতিত জমি। আমরা দীর্ঘদিন যাবৎ সরকারি খাস জমি হিসাবে ভোগ দখল করে আসছি। হঠাৎ আমাদের বাড়ির রাস্তা বন্ধ করতে জমির ভুয়া কাগজ পত্র দেখিয়ে লাঠি সোটা হাতে দলবল নিয়ে জমি দখল করতে আসে। 

এ বিষয়ে হামলাকারী দলের শুকুর আলী জানান, উক্ত জমি আমাদের নিজস্ব। আমরা সরকারের কাছ থেকে বন্দোবস্ত নিয়েছি। এক যুগ ধরে মামলা করে আমরা রায় পেয়ে জমি দখলে গিয়েছি। আমাদের জমি নিয়ে যদি জেল খাটতে হয় তবুও জমি ছেড়ে দিব না।
 
গাংনী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হরেন্দ্রনাথ সরকার জানান, ‘অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

মন্তব্য