kalerkantho

শুক্রবার । ২৪ মে ২০১৯। ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৮ রমজান ১৪৪০

ধূমপান করাতে বাধা দেওয়ায় বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীকে মারধর

সোনারগাঁ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি   

১৮ এপ্রিল, ২০১৯ ১৮:৪৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ধূমপান করাতে বাধা দেওয়ায় বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীকে মারধর

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার পৌরসভার আমিনপুর মাঠে এক শিশুকে ধূমপান করাতে বাঁধা দেওয়ায় হামদর্দ বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত সাইফুল নামে এক শিক্ষার্থীকে লোহার রড ও খেলার স্ট্যাম্প দিয়ে পিটিয়ে জখম করার অভিযোগ উঠেছে।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে যুবককে পিটিয়ে মারাত্মকভাবে আহত করা হয়েছে। আহত শিক্ষার্থীকে উদ্ধার করে প্রথমে সোনারগাঁ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে আশংকাজনক অবস্থায় থাকায় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি  করা হয়েছে।

জানা গেছে, সোনারগাঁ পৌর এলাকার দীঘিরপাড় গ্রামের রিফাত, হিমেল, সিফাত এবং কৃষ্ণপুরা গ্রামের শান্ত ও ইমন দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় মাদক বিক্রি ও সেবনসহ নানা অপরাধ করে আসছে। কিন্তু আজ উল্লেখিত অপরাধীরা সংঘবদ্ধ হয়ে রাস্তায় এক শিশুকে জোরপূর্বক সিগারেট খাওয়ানোর চেষ্টা করে। এসময় শিশুটি কান্নাকাটি করলে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সাইফুল ইসলাম বাধা দেয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে বখাটেরা সাইফুলের ওপর লোহার রড ও খেলার স্ট্যাম্প দিয়ে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে তার মাথা, হাত, পাসহ শরীরের বিভিন্ন জায়গায় পিটিয়ে মারাত্মক আহত করে। এর পর তার সাথে থাকা একটি সাওমি এমআই-৮ মোবাইল, মানিব্যাগ ও স্টুডেন্ট আইডি কার্ডটি ছিনিয়ে নেয়। সাইফুলের ডাক চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। পরে তার অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো করা হয়। 

এ ঘটনায় আজ বিকেলে আহত শিক্ষার্থীর ভাই আবু নাইম সজীব বাদি হয়ে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

সোনারগাঁ থানার ওসি মনিরুজ্জামান মনির বলেন, শিক্ষার্থীকে পিটিয়ে আহত করার ঘটনায় থানায় একটি অভিযোগ গ্রহণ করা হয়েছে। তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

মন্তব্য