kalerkantho

বুধবার । ২২ মে ২০১৯। ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৬ রমজান ১৪৪০

শ্রীবরদীতে ভিক্ষা না করার অঙ্গীকার ভিক্ষুকদের

শ্রীবরদী (শেরপুর) প্রতিনিধি   

১৮ এপ্রিল, ২০১৯ ১৭:৫৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শ্রীবরদীতে ভিক্ষা না করার অঙ্গীকার ভিক্ষুকদের

ভিক্ষা না করার অঙ্গীকার করলো শেরপুরের শ্রীবরদী উপজেলার দু’টি ইউনিয়নের ভিক্ষুকরা। বৃহস্পতিবার শ্রীবরদী সদর ইউনিয়ন পরিষদের হলরুমে উপজেলা পরিষদ আয়োজিত ভিক্ষুক পূণর্বাসন কর্মসূচির উদ্বোধন অনুষ্ঠানে ভিক্ষুকরা এ প্রতিশ্রুতি দেন। 

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক আনার কলি মাহবুব বলেন, ‘ভিক্ষে বৃত্তি জীবন থেকে সরে আসতে ও তাদের জীবন মান উন্নয়নের লক্ষে এ কর্মসূচী হাতে নেয়া হয়েছে। প্রত্যেক ভিক্ষুককে ১০ হাজার টাকা এবং কয়েকজনকে সেলাই মেশিন, ভ্যানগাড়ী, ওজন মাপার যন্ত্র ও দোকান বরাদ্ধ দেওয়া হবে। পরবর্তীতে ভিক্ষুকদের তালিকা করে অন্যান্য ইউনিয়নেও এ কর্মসূচি বাস্তবায়ন করা হবে। যাতে ভিক্ষুকরা স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসতে পারে। সমাজে তারাও যেন মাথা উচু করে দাঁড়াতে পারে।

এসময় তিনি শ্রীবরদী সদর ইউনিয়ন ও গোসাইপুর ইউনিয়নে ভিক্ষুক মুক্ত ঘোষনা করেন। 

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা রাকিবুল হাসানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন শ্রীবরদী সদর ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল হালিম। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) মঞ্জুরুল হাসান, উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম, সমাজ সেবা কর্মকর্তা সরকার ফাতেমা নাছরিনসহ স্থানীয় ইউপি সদস্য ও ভিক্ষুকরা।
 
পরে একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পের আওতায় শ্রীবরদী সদর ইউনিয়নে ২৪ জন ভিক্ষুকের মাঝে ১০ হাজার টাকা করে ঋণ, একজনকে একটি সেলাই মেশিন, দুইজনকে একটি করে ওজন মাপার যন্ত্র, ১০ জনকে ভ্যানগাড়ীসহ প্রত্যেককে চার হাজার আটশ করে টাকা প্রদান করা হয়। গোসাইপুর ইউনিয়নে ১৪ জন ভিক্ষকের মাঝে ১০ হাজার টাকা করে ঋণ, ১০ জনকে পাঁচটি ভ্যানগাড়ী, একজনকে একটি সেলাই মেশিন, দুইজনকে দু’টি ওজন মাপার যন্ত্র ও প্রত্যেককে চার হাজার আটশ টাকা করে প্রদান করা হয়। 

মন্তব্য