kalerkantho

গবেষণায় বাৎসরিক ১২০০০ ডলার করে পাবেন নোবিপ্রবি'র তিন শিক্ষার্থী

নোবিপ্রবি প্রতিনিধি   

১২ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:৩০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গবেষণায় বাৎসরিক ১২০০০ ডলার করে পাবেন নোবিপ্রবি'র তিন শিক্ষার্থী

আন্তজার্তিক গবেষণা সংস্থা 'ওয়ার্ল্ডফিশ' বাংলাদেশের নবীন গবেষকদের গবেষণায় আরো আগ্রহী করে গড়ে তোলার লক্ষে সম্প্রতি বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ফ্যাকাল্টি অব ফিশারিজ এ “WorldFish Science Event for Young Researchers in Bangladesh” শিরোনামে একটি পোস্টার প্রেজেন্টেশন প্রতিযোগিতার আয়োজন করে।

বাংলাদেশের বিভিন্ন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, পিএইচডি ফেলো এবং স্নাতকোত্তর শিক্ষার্থীসহ মোট ৮১ জন উক্ত প্রতিযোগিতায় নিজ নিজ মৌলিক গবেষণা প্রকল্প জমা দেন। ৮১ জন প্রতিযোগীর মধ্য থেকে ২১ জন প্রতিযোগীকে প্রাথমিকভাবে বাছাই করে সেরা প্রকল্পগুলো পোস্টার প্রেজেন্টেশনের জন্য আমন্ত্রণ জানানো হয়।

গত ৪ এপ্রিল বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ফ্যাকাল্টি অব ফিশারিজে অনুষ্ঠিত পোস্টার প্রেজেন্টেশনে উক্ত ২১ জনের মধ্যে সেরা ১০ জন প্রতিযোগী নির্বাচন করা হয়। যাদের মধ্যে নোবিপ্রবির ফিশারিজ অ্যান্ড মেরিন সায়েন্স বিভাগের ৩ জন শিক্ষার্থী নির্বাচিত হয়। তারা হলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ৮ম ব্যাচের তৌশিক লাহিড়ী ও নাজমুন নাহার এবং নবম ব্যাচের মো. মহসিন। তারা যথাক্রমে ৩য়, ৭ম ও ৫ম স্থান অধিকার করেন।

উল্লেখ্য, উক্ত বিভাগের শিক্ষক সহযোগী অধ্যাপক ড. আব্দুল্লাহ্ আল মামুন তাদের গবেষণা তত্ত্বাবধায়ক হিসেবে আছেন। প্রতিযোগিতায় নির্বাচিত প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে তাদের গবেষণা কার্যক্রম পরিচালনার জন্য বাৎসরিক ১২,০০০ ইউএস ডলার প্রদান করা হবে।

প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশে নিযুক্ত ওয়ার্ল্ডফিশের কান্ট্রি ডিরেক্টর ড. ম্যালকম ডিকসনসহ আমেরিকা, অস্ট্রেলিয়া, নরওয়ে, ইংল্যান্ড, লাতিন আমেরিকা ও অন্যান্য দেশের খ্যাতনামা গবেষকগণ উপস্থিত থেকে বিচারকের দায়িত্ব পালন করেন।

মন্তব্য