kalerkantho

মঙ্গলবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১২ রবিউস সানি     

শাজাহানপুরে আওয়ামী লীগ নেতাসহ তিনজনকে পিটিয়ে আহত

শাজাহানপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি   

২৬ মার্চ, ২০১৯ ১৮:৩৭ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



শাজাহানপুরে আওয়ামী লীগ নেতাসহ তিনজনকে পিটিয়ে আহত

বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলার গোহাইল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক উমর ফারুকসহ তার ছোটভাই ও প্রাইভেটকারের ড্রাইভারকে কৌশলে অপহরণ করে চাঁদা না পেয়ে বেদম মারপিট করেছে সন্ত্রাসীরা।

খবর পেয়ে সোমবার রাত ১১টার দিকে ঘটনাস্থল থেকে আওয়ামী লীগ নেতা উমর ফারুক ও তার ভাইকে উদ্ধার করে থানা পুলিশ। এ সময় সন্ত্রাসীদের আটক করতে না পারলেও তাদের ব্যবহৃত একটি মোটরসাইকেল আটক করা হয়।

আহত উমর ফারুক উপজেলার চেলো গ্রামের মৃত আলহাজ্ব ময়েন উদ্দিনের পুত্র। অপর আহতরা হলেন উমর ফারুকের ছোট ভাই আনোয়ার হোসেন ও তার গাড়ির ড্রাইভার একই গ্রামের রমজান গনির পুত্র মানিক মিয়া।

আওয়ামী লীগ নেতা উমর ফারুক জানান, ব্যক্তিগত কাজ শেষ করে সোমবার বিকেলে ঢাকা থেকে ফেরার পথে তার ব্যবহৃত প্রাইভেটকারের ড্রাইভার মানিক মিয়াকে গাড়ি নিয়ে বগুড়ার শেরপুর উপজেলার গাড়িদহ স্ট্যান্ডে আসতে বলেন। ড্রাইভার মানিক মিয়া গাড়ি নিয়ে গন্তব্যস্থলে আসার পথে বিকেল সাড়ে ৫ টার দিকে শাজাহানপুর উপজেলার বেড়াগাড়ি নামক স্থানে পৌঁছালে রাস্তায় তিনটি মোটরসাইকেলে ছয়জন আরোহীকে সাইড দেওয়ার জন্য হর্ন দেয়। সাইড না পেয়ে বার বার হর্ন দেওয়ায় তারা মোটরসাইকেলের ব্যারিকেট দিয়ে গাড়ি থামিয়ে ড্রাইভার মানিককে বার্মিজ চাকু ও পিস্তুল ঠেকিয়ে গাড়িসহ অপহরণ করে নিয়ে যায়। সেখানে ড্রাইভার মানিক মিয়াকে মারপিট করতে থাকে অপহরণকারীরা। স্থানীয়দের দেওয়া খবর পেয়ে উমর ফারুকের ছোট ভাই আনোয়ার হোসেন সেখানে গেলে দুইভাইকে গাছে বেঁধে অস্ত্র ঠেকিয়ে এক লক্ষ টাকা চাঁদা দাবি করে। টাকা দিতে রাজি না হওয়ায় মারপিট করতে থাকে।

এ সময় অপহরণকারীদের প্রধান বগুড়া সদরের খান্দার এলাকার সন্ত্রাসী স্বর্গ ক্ষিপ্ত হয়ে বলে, তুই আর চেয়ারম্যান ফজু তোদেরকে শায়েস্তা করতে পারলেই আর কোনো সমস্যা হবে না। সব ঠাণ্ডা হয়ে যাবে। একপর্যায়ে রাত ১১টার দিকে খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে তাদেরকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেন। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান তিনি।

থানার ওসি জিয়া লতিফুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে উমর ফারুক ও তার ভাইকে উদ্ধার করা হয়েছে। এ সময় দুষ্কৃতিকারীদের ব্যবহৃত একটি মোটরসাইকেল আটক করা হয়েছে। খান্দার এলাকার স্বর্গ নামের একজনের নেতৃত্বে নন্দিগ্রাম, শেরপুর উপজেলার বিভিন্ন স্থানে এধ রনের ছিনতাই, চাদাবাজি করার খবর পাওয়া গেছে। এখন শাজাহানপুরে শুরু করেছে। এদের গ্রেপ্তারের জোর চেষ্টা চলছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা