kalerkantho

মঙ্গলবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১২ রবিউস সানি     

শ্রীবরদীতে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী শহীদুল বিজয়ী

শ্রীবরদী (শেরপুর) প্রতিনিধি   

২৫ মার্চ, ২০১৯ ০২:৫৪ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



শ্রীবরদীতে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী শহীদুল বিজয়ী

তৃতীয় ধাপের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে শেরপুরের শ্রীবরদী উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে বিপুল ভোটের ব্যবধানে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী স্বতন্ত্র প্রার্থী এ ডি এম শহীদুল ইসলাম বিজয়ী হয়েছেন। তিনি মোটরসাইকেল প্রতীকে ভোট পেয়েছেন ৩৩ হাজার ৯৩ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের আহবায়ক স্বতন্ত্র প্রার্থী জাহিদুল ইসলাম জুয়েল আনারস প্রতীকে ভোট পেয়েছেন ২০ হাজার ৪৭৯। 

চেয়ারম্যান পদে অপর প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ইঞ্জিনিয়ার ইকবাল হাসান জাতীয় পার্টি মনোনীত লাঙ্গল প্রতীকে ভোট পেয়েছেন ১১ হাজার ৬২৭। আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আশরাফ হোসেন খোকা নৌকা প্রতীকে ভোট পেয়েছেন ৮ হাজার ১১৪ ভোট। আওয়ামী লীগ নেতা স্বতন্ত্র আব্দুল হামিদ সোহাগ ঘোড়া প্রতীকের ভোট পেয়েছেন ৭ হাজার ৯৫০ ভোট। উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুল মতিন দোয়াত কলম প্রতীকে ভোট পেয়েছেন ৩ হাজার ৬৮৯ ভোট। এরশাদুজ্জামান স্বতন্ত্র প্রার্থী হেলিকপ্টার প্রতীকে ভোট পেয়েছেন ২৩৮ ভোট। ইউনিয়ন কৃষক লীগের সভাপতি স্বতন্ত্র প্রার্থী সরোয়ার পারভেজ খোকন কাপ পিরিচ প্রতীকের ভোট পেয়েছেন ১২১ ভোট।

ভাইস চেয়ারম্যান পদে ১৯ হাজার ৫৯৮ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছে সাবেক উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জুয়েল আকন্দ। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী টিয়া পাখি প্রতীকের ১১ হাজার ২৬৭ ভোট পেয়ে নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী হয়েছেন ফরিদ আহমেদ নিলু। অপর প্রার্থী গোলাম মোস্তফা চশমা প্রতীকে পেয়েছেন ১০ হাজার ৭২ ভোট। ফারুক হোসেন শ্যামল টিউবওয়েল প্রতীকে পেয়েছেন ৮ হাজার ৭৪৫ ভোট। মিজানুর রহমান ৭ হাজার ৬২৪ ভোট পেয়েছেন। এমরুল কায়েস তালাচাবি প্রতীকে পেয়েছেন ৭ হাজার ৫১৭ ভোট। বিল্লাল হোসেন গ্যাস সিলিন্ডার প্রতীকে পেয়েছেন ৬ হাজার ৬৬০ ভোট। আনিছুর রহমান বই প্রতীকে পেয়েছেন ৬ হাজার ৪৮৫ ভোট। খন্দকার মোহাম্মদ শামীম রানা পালকি প্রতীকে পেয়েছেন ২ হাজার ৫০৭ ভোট ও বাল্ব প্রতীকের ফজলুর রহমান বাল্ব প্রতীকে ২ হাজার ৬১৬ ভোট পেয়েছেন। 

মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে জাহানারা বেগম কলস প্রতীকে ৪৯ হাজার ৫ হাজার ১৮ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সাবেক মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান লিপি বেগম ফুটবল প্রতীকে পেয়েছেন ২৮ হাজার ৮৩৪ ভোট। অপর একজন সাবেক মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান লাবিনা আক্তার লিমা হাঁস প্রতীকে ভোট পেয়েছেন ১২ হাজার ৫৯২ ভোট। উপজেলা পরিষদের সোমেশ্বরী হলরুমে এসব মাইকে ও প্রজেক্টরের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে ফলাফল ঘোষণা করেন সহকারী রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সেঁজুতি ধর। 

এ সময় উপজেলা নির্বাচন অফিসার মাহমুদুর হাসান, উপজেলা মাধ্যমিক অফিসার রহুল আমিন তালুকদার, সাংবাদিক, প্রার্থী ও তার প্রতিনিধিরাসহ বিভিন্ন বিভাগের কর্মকর্তা, কর্মচারী আর আইন শৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। ফলাফল শোনার জন্যে পরিষদের কম্পাউন্ডে প্রার্থীদের বিপুলসংখ্যক সমর্থক উপস্থিত ছিলেন। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা