kalerkantho

মঙ্গলবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১২ রবিউস সানি     

পোস্টার অপসারণে চেয়ারম্যান সফি আহমদ সলমান

কুলাউড়া (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি   

২৪ মার্চ, ২০১৯ ১৯:২০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



পোস্টার অপসারণে চেয়ারম্যান সফি আহমদ সলমান

মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় নিজের নির্বাচনী পোস্টার সরিয়ে ফেলতে দলীয় নেতাকর্মীদের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন নবনির্বাচিত উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ এ কে এম সফি আহমদ সলমান। একইসঙ্গে তিনি নিজেই তার পলিথিন মোড়ানো পোস্টার অপসারণে নেমে পড়েছেন।

এবার প্রথমবারের মতো নির্বাচন করেই কুলাউড়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন সফি আহমদ সলমান। শনিবার বিকেলে কুলাউড়া পৌর শহরের সিএনজি পাম্প এলাকার সড়ক থেকে খুঁটির সঙ্গে বাঁধা নিজের পোস্টার অপসারণের কাজ শুরু করেন তিনি। পৌর কাউন্সিলর ইকবাল আহমদ শামীম বলেন, নির্বাচনী পোস্টারগুলো নগরের স্বাভাবিক পরিচ্ছন্নতাকে বিনষ্ট করছে। এ ছাড়া সেগুলো ড্রেনের ভেতরে আটকে গিয়ে স্বাভাবিক সুয়ারেজ ব্যবস্থাকে বাধাগ্রস্ত করতে পারে। সে হিসেবে উদ্যোগটিকে ভালোই বলা যায়।

সাপ্তাহিক কুলাউড়ার ডাক পত্রিকার বার্তা সম্পাদক এম মছব্বির আলী বলেন, শহরের অনেক জায়গায় প্রার্থীদের পোস্টারগুলো এখনো লাগানো রয়েছে। সব প্রার্থী মিলে তাদের পোস্টারগুলো যদি খুলে ফেলতো, তাহলে ভালোই লাগতো।

কুলাউড়ার একমাত্র পরিবেশবাদী সংগঠন শেড অব নেচারের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি সুফিয়ান আহমদ বলেন, পলিথিন একটি নিষিদ্ধ পণ্য। এটি পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় অনেক ক্ষতি করে। নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান যে ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নিয়েছেন তাতে বোঝা যায় কুলাউড়ায় একটি পরিবর্তনের ছোঁয়া লাগবে। তিনি তাঁর সকল সৃষ্টিশীল কাজের মাধ্যমে কুলাউড়াকে একটি আধুনিক কুলাউড়া গড়ে তুলবেন এমনটাই প্রত্যাশা করছি। 

বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলনের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য তোফাজ্জল সোহেল বলেন, পলিথিন ব্যবহারের ফলে ড্রেন, নালা-নর্দমা, খাল, ঝিল ভরাট হয়ে পানির প্রবাহ বাধাগ্রস্ত হচ্ছে এবং সামান্য বৃষ্টিতেই সৃষ্টি হচ্ছে জলাবদ্ধতা। বাংলাদেশে প্লাস্টিক ও পলিথিনের ব্যবহার আরো বাড়বে যদি এর লাগাম টেনে ধরা না হয়। তখন পরিবেশ আরো বেশি ক্ষতির সম্মুখীন হবে।

নির্বাচনের সময় পোস্টার মোড়ানোর কাজে ব্যবহারের জন্য পলিথিনের চাহিদা কয়েকগুণ বেড়ে গেছে, যা পরিবেশের জন্যে অত্যন্ত ক্ষতিকর। পলিথিন ব্যবহার না করার বিষয়টি নির্বাচনী নীতিমালায় আনা উচিত বলে মন্তব্য করেছেন বিভিন্ন এলাকার বেশ কয়েকজন পরিবেশবাদী।

নবনির্বাচিত উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ এ কে এম সফি আহমদ সলমান কালের কণ্ঠকে বলেন, একটি সমৃদ্ধ ও সুন্দর কুলাউড়া উপজেলা গড়তে সবাইকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে। এখন যেহেতু নির্বাচন শেষ, তাই আমি নিজেই আমার কর্মীদের নিয়ে এসব পোস্টার অপসারণের কাজ করছি। আমি আমার পোস্টার খুলছি। সব প্রার্থীদের কাছে অনুরোধ জানাচ্ছি, তারাও যেন তাদের পোস্টার খুলে ফেলে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা