kalerkantho

শুক্রবার  । ১৮ অক্টোবর ২০১৯। ২ কাতির্ক ১৪২৬। ১৮ সফর ১৪৪১              

লাইনে দাঁড়িয়ে ভোট দিলেন দীপু মনি

চাঁদপুর প্রতিনিধি   

২৪ মার্চ, ২০১৯ ১৮:০৫ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



লাইনে দাঁড়িয়ে ভোট দিলেন দীপু মনি

বড় ধরণের কোনো গোলযোগ ছাড়াই চাঁদপুরে নিরুত্তাপ শান্তিপূর্ণ ভোট সম্পন্ন হয়েছে। তবে বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বেশকিছু কেন্দ্রে ভোটারের উপস্থিতি দেখা গেলেও দুপুর পর আবারো প্রায় কেন্দ্র ছিল ফাঁকা।

এদিন সকাল সোয়া ৮টায় সদর উপজেলার কামরাঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট দেন স্থানীয় সংসদ সদস্য, শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। এ সময় অন্য ভোটারের মতো সারিতে দাঁড়িয়ে কেন্দ্রে প্রবেশ করেন তিনি। ভোট প্রদান শেষে সরাসরি নৌপথে রাজধানীর উদ্দেশ্যে চাঁদপুর ত্যাগ করেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

দুপুর দুই টায় ফরিদগঞ্জ উপজেলা নির্বাচনে ভোটের পরিবেশ নেই এমন অজুহাতে তুলে নিজেকে প্রত্যাহার করে নিয়েছেন চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী তোফায়েল আহমেদ ভূঁইয়া। অন্যদিকে কচুয়া উপজেলায় অপর স্বতন্ত্র প্রার্থী ফয়েজ আহমেদ স্বপনের গাড়িতে হামলা করেছে একদল দুর্বৃত্ত। দুপুরে উপজেলার নন্দনপুর এলাকা অতিক্রমকালে তার গাড়িতে এই হামলার ঘটনা ঘটে। এ ছাড়া অন্য কোথাও তেমন কোনো গোলযোগ হয়নি।

এ ছাড়া সকাল ১১টায় মতলব দক্ষিণের পশ্চিম বাইশপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ব্যালট পেপার ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটে। জেলা রিটার্নিং অফিসার শওকত ওসমান জানান, একদল দুর্বৃত্ত ওই কেন্দ্রে ঢুকে ৮ শ ব্যালট পেপার ছিনতাই নিয়ে যায়। তিনি আরো জানান, সেখানে শুধু পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন হচ্ছিল। ঘটনার পর সেখানে ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়। এই উপজেলায় চেয়ারম্যান এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে একক প্রার্থী হওয়ায় দুই পদে ভোট হয়নি।

এদিন জেলার ৭টি উপজেলার মধ্যে ৬টিতে রবিবার সকাল ৮টা থেকে এই ভোটগ্রহণ চলে। এই ৬টি উপজেলা হচ্ছে, চাঁদপুর সদর, ফরিদগঞ্জ, শাহরাস্তি, কচুয়া, হাজীগঞ্জ (শুধুমাত্র মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান) এবং মতলব দক্ষিণে (শুধুমাত্র পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান)। তবে মতলব উত্তরে সব কয়টি পদে একক প্রার্থী থাকায় সেখানে ভোট হয়নি। চাঁদপুরের এই ৭ উপজেলার মোট ৬ শ ৪৯টি কেন্দ্রের ৪ হাজার ৮৭টি বুথে এই ভোটগ্রহণ চলে।

বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, ভোটারের উপস্থিতি কম হলেও সবমিলে ৪০ শতাংশ ভোট পড়েছে। 

ইতিমধ্যে চাঁদপুরে প্রতিদ্বন্দ্বিতা ছাড়া যে তিন উপজেলা চেয়ারম্যান আলোচনায় এসেছেন তারা হচ্ছেন, মতলব উত্তরের এম এ কুদ্দুস, মতলব দক্ষিণের এ এইচ এম গিয়াসউদ্দিন এবং হাজীগঞ্জে গাজী মো. মাইনউদ্দিন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা